Monday, April 15, 2024
spot_img
Homeজেলাঅবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

বিশ্ব সমাচার, বারুইপুর: কয়েকদিন আগে গার্ডেনরিচে অবৈধ নির্মাণ ভেঙে বিপত্তি হয়েছে। মারা গেছেন ১০ জন। এখনও কয়েকজন আটকে আছে ভাঙা বাড়িতে। কলকাতা হাইকোর্ট সব অবৈধ বাড়ি ভেঙে ফেলতে নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসনকে। তারপর থেকেই সবার নজর অবৈধ নির্মাণের দিকে।

অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

অবৈধ নির্মাণ কি শুধুই শহরের বুকে, নাকি জেলার প্রত্যন্ত গ্রামেগঞ্জেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে? তার খোঁজ করতেই ভয়াবহ ছবি ধরা পড়ল দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরে। বারুইপুর পশ্চিম বিধানসভার মল্লিকপুর ও হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে রয়েছে একাধিক অবৈধ নির্মাণ।

অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

কোনও বৈধ অনুমতি ছাড়াই কয়েকশো বহুতল গড়ে উঠেছে মল্লিকপুর ও হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। এ বিষয়ে সাধারণ গ্রামবাসীরা মল্লিকপুর ও হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন, তাদের সঙ্গে যোগসাজশেই এই অবৈধ বহুতল হচ্ছে। যদিও এই অভিযোগ নিয়ে মল্লিকপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান হবিবুর রহমান বৈদ্যর কাছে গেলে তিনি জানান, তাঁর এলাকার বহুতলগুলি কোনও অনুমতি ছাড়াই নির্মাণ হয়েছে।

অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

যে কারণে তিনি প্রশাসনকে বারবার জানিয়েছেন, চিঠি দিয়েছেন অবৈধ নির্মাণ বন্ধ করার জন্য। বিডিও, এসডিও ও বারুইপুর থানা সবার কাছেই তিনি আবেদন জানিয়েছেন। কিন্তু অবৈধ বহুতল নির্মাণ আটকানো যায়নি।এদিন অভিযোগ উঠেছে হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধেও। সেখানেও একাধিক বহুতল নির্মাণ হয়েছে, যার কোন বৈধ অনুমতি নেই।

অবৈধ নির্মাণের অভিযোগ মল্লিকপুর ও হরিহরপুরে

এই প্রসঙ্গে হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান কমল মিত্র স্পষ্ট জানিয়েছেন, তাঁর কাছে এই ধরনের কোনও অভিযোগ নেই। তিনি সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকে জানতে পেরেছেন এবং তিনি এই বিষয়ে খোঁজখবর নেবেন। অবৈধ নির্মাণের সঙ্গে কোনও ভাবে হরিহরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য বা প্রধান যুক্ত নেই।

Most Popular