Friday, May 24, 2024
spot_img
spot_img
Homeরাজ্যপ্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

স্টাফ রিপোর্টার: ভাই স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় ওরফে বাবুনের সঙ্গে সকল সম্পর্ক ত্যাগের কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার শিলিগুড়িতে একটি সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, “আমি যেদিন থেকে পার্টি করি, কোটি কোটি মানুষের সাথে কাজ করি। আমার পরিবার বলে কিছু নেই। আমার পরিবার মানুষের পরিবার। মা-মাটি-মানুষের পরিবার। আর যদি রক্তের পরিবার ধরেন তাহলে প্রায় ৩২ জন সদস্য।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

আমাদের কেউ এরকম নয়। এটাতে সবাই খুব ক্ষুব্ধ। আমি সরাসরি বলছি বড় হলে অনেকের লোভ বেশি বেড়ে যায়। আমার পরিবারের ও কোনও সদস্য বলে মনে করি না। আজ থেকে কোনও সম্পর্ক নেই। ভাই বলে কেউ পরিচয় দেবেন না। কোনও সম্পর্ক নেই। পরিবারের সঙ্গে জড়াবেন না। দল যাঁকে প্রার্থী করেছেন, সেই প্রার্থী। যে ভদ্রলোকের নাম আপনারা বলছেন তাঁর অনেক কাজকর্ম আমার অনেকদিন ধরে পছন্দ নয়।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

তার কারণ আমি অন্যায় সহ্য করি না। সুতরাং তর্ক বিতর্কের কোনও ব্যাপার নেই। যে যেখানে খুশি যেতে পারেন। আমি পরিবারতন্ত্র করি না। আমি মানুষতন্ত্র করি। আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিল ভুলে যান। আজ থেকে কোনও সম্পর্ক নেই। যে যেখানে খুশি লড়তে পারেন। আমি লোভী লোকেদের পছন্দ করি না। শুধু আজ নয়, প্রতিটি নির্বাচনেই অশান্তি করেছে।” কিছুটা আক্ষেপের সুরে মমতা এদিন আরও বলেন, “নিজেদের ছোটবেলা ভুলে গিয়েছে।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

অভিষেককে বলছিলাম বাবা যখন মারা গিয়েছেন বয়স ছিল আড়াই বছর। আমি ৪৫ টাকা পেতাম। দুধের ডিপোয় কাজ করে মানুষ করেছি। রাজনীতি করতাম। তাই হয়তো ওকে মানুষ করতে পারিনি।” বিরোধীদের তোলা পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ ধূলিসাৎ করে দিয়ে সব শেষে মমতা বলেন, “আমি পরিবারতন্ত্র করি না জলজ্যান্ত প্রমাণ দিলাম।” বিজেপির বিরুদ্ধে ‘ঘর ভাঙানোর খেলা’ করার অভিযোগের আঙুলও তুলেছেন মমতা।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

এই দ্বন্দ্বের পর মমতার দাবি, “হাওড়ার তৃণমূল প্রার্থী প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে জেতানোর দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল। কিছু লোভী লোক চ্যালেঞ্জ করেছে সমর্থন করি না।” মঙ্গলবার থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতার ছোট ভাই বাবুনের বিজেপিতে যোগদান করা নিয়ে নানা জল্পনা ঘোরাফেরা করতে শুরু করেছিল রাজনীতির অলিন্দে। এরই মধ্যে হঠাৎ বাবুন দিল্লি চলে যাওয়ায় সেই জল্পনা আরও বেশি করে দানা বাঁধে।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

বাবুন নিজে এক পরিচিতের চিকিৎসার জন্য দিল্লিতে এসেছেন বলে জানালেও বিভিন্ন রাজনৈতিক সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছিল, সেখানে গিয়ে বাবুন দেখা করবেন অলিম্পিক্স সংস্থার প্রাক্তন সহ-সভাপতি নরেন্দ্র বাত্রার সঙ্গে। যিনি বিজেপির ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত। এই নিয়ে যখন লোকসভা ভোটমুখী বাংলায় আলোচনার পারদ চড়তে শুরু করেছে, তখনই সেই জল্পনা নাকচ করেছেন বাবুন। তবে একই সঙ্গে তিনি জানান, বিজেপিতে না গেলেও নিজের দল যে ভাবে তাঁর পরামর্শকে গুরুত্ব দেয়নি, তাতে অভিমান হয়েছে।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

বুধবার সংবাদমাধ্যমে স্বপন জানান, তিনি বিজেপিতে যাচ্ছেন না। তবে দলের প্রার্থিতালিকা দেখে অভিমান হয়েছে তাঁর। কারণ সেখানে প্রার্থী করা হয়েছে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে। যাঁকে তিনি অপছন্দ করেন এবং একই সঙ্গে মনে করেন, তিনি লোকসভা ভোটের প্রার্থী হওয়ার যোগ্য নয়। কারণ প্রসূন এলাকার উন্নয়ন খাতে নিজের সাংসদ তহবিলের বরাদ্দটুকুও শেষ করতে পারেননি। প্রসূন সম্পর্কে যে তাঁর ‘অ্যালার্জি’ রয়েছে, তা-ও স্পষ্ট করে জানিয়েছেন মমতার ভাই।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

গত রবিবার চমকে ভরা ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে ৪২ আসনে প্রার্থী ঘোষণা করে তৃণমূল। হাওড়া লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে টিকিট দেওয়া হয়েছে। তাতেই ‘ক্ষুব্ধ’ বাবুন। তাঁকে লোকসভা ভোটে টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল বলেই দাবি বাবুনের। সেই আশ্বাস বাস্তবায়িত না হওয়ায় প্রয়োজনে নির্দল প্রার্থী হিসাবে লড়তে পারেন বলেও গুঞ্জন। তবে একজন স্বাধীন নাগরিক হিসাবে যে যেকোনও আসনে ভোটে লড়তে পারেন বলেই স্পষ্ট জানিয়ে দেন মমতা।

প্রার্থী নিয়ে বিদ্রোহী বাবুন, ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের ঘোষণা মমতার

এদিকে মমতার এই ঘোষণার পর বাবুন বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের নেতৃত্বে আছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার দিদি। উনিই আমার অভিভাবক। বিজেপি নিয়ে যে খবর আসছে ওটা ফেক নিউজ। এর থেকে বেশি কিছু বলার নেই।”

Most Popular

error: Content is protected !!