Friday, April 19, 2024
spot_img
Homeজেলালোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

প্রদীপকুমার সিংহ, নরেন্দ্রপুর: লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার আগেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কর্মীরা দেওয়াল দখলে ব্যস্ত। এই দেওয়াল লিখন নিয়ে উত্তেজনা দেখা গেল নরেন্দ্রপুর থানা এলাকায়। এই দেওয়াল দখলকে কেন্দ্র করে তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে বাধল সংঘর্ষ। বিজেপি কর্মীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল।সোনারপুর উত্তর বিধানসভা এলাকার খেয়াদহের রানাভুতিয়া অঞ্চলে দেওয়াল দখলকে কেন্দ্র করে বিজেপি নেতাকে মারধর ও প্রাণে মেরে দেওয়ার হুমকির অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, লোকসভা ভোটের আগে এলাকার কয়েকটি দেওয়ালে চুন লাগিয়ে ছিলেন বিজেপি কর্মীরা।

লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

সেই দেওয়ালে তৃণমূল কংগ্রেস লিখে দেওয়াল দখল করা হয়। যে সকল বিজেপি কর্মীরা দেওয়ালে চুন লাগানোর কাজ করেছিলেন, তাঁদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন তৃণমূল কর্মীরা। এলাকার বিজেপি নেতা অমল মণ্ডল চায়ের দোকানে চা খেতে গেলে তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, কেন তিনি দেওয়ালে চুন লাগিয়েছেন? সেই সঙ্গে গায়ে গরম চা ঢেলে দেওয়া এবং মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।

লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

এমনকী বিজেপি করলে জানে মেরে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। ইতিমধ্যে নরেন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন অমলবাবু সহ এলাকার বিজেপি কর্মীরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ আধিকারিকরা।
তৃণমূল কংগ্রেসের ওই এলাকার সংগঠনের সদস্য বলেন, পুরো ব্যাপারটাই মিথ্যা।

লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়াল দখল নিয়ে সংঘর্ষ বাধল নরেন্দ্রপুরে

আইন আইনের পথেই চলবে। তিনি আরও বলেন, ওই জায়গায় বিজেপির কোনও সংগঠনই নেই। পুলিশ তদন্ত করে দেখবে অভিযোগ সত্য না মিথ্যা। এই নিয়ে বারুইপুরের কার্যালয়ে বিজেপি নেতা মনোরঞ্জন জোয়ারদার সাংবাদিক বৈঠক করেন।

Most Popular