Tuesday, February 27, 2024
Homeরাজ্যজ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

স্টাফ রিপোর্টার: দুই তৃণমূল নেতার গ্রেফতারের দাবিতে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভে নতুন করে অশান্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি৷ জ্বলল আগুনও৷ ঘটনার সূত্রপাত বুধবার থেকে।এদিন পলাতক তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহান ঘনিষ্ঠ দুই নেতা শিবু হাজরা এবং উত্তম সর্দারের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে গ্রামবাসীরা৷ওই দিনই দুই তৃণমূল নেতার পোলট্রি ফার্মে আগুন ধরিয়ে দেয় ক্ষিপ্ত জনতা৷

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

বুধবারের পর বৃহস্পতিবার শাহজাহানদের গ্রেফতারির দাবিতে পথে নেমেছিলেন মহিলারা।প্রবল ক্ষোভের মুখে পড়েন পুলিশ আধিকারিকরা। ওই ঘটনায় রাতে গ্রেপ্তার করা হয় ৩ জনকে। এর পর থেকেই সন্দেশখালির পরিস্থিতি থমথমে ছিল৷বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবারও দেখা যায় একই ছবি।এদিন সকাল থেকে কাটারি, দা, বাঁশ, লাঠি হাতে পথে নামে স্থানীয় বাসিন্দারা।কেন গ্রেপ্তার করা হল না শিবু হাজরাকে?

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

এই প্রশ্ন তুলে এদিন জেলিয়াখালি এলাকায় শিবু হাজরার আরও তিনটি পোলট্রি ফার্মে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। ভাঙচুরের পাশাপাশি আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় শিবু হাজরার বসতবাড়িতেও। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় এলাকা। রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করেন মহিলারাও। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সন্দেশখালির প্রত্যন্ত এলাকাগুলিতে শেখ শাহজাহান ও তার ২ অনুগামী শিবু হাজরা ও উত্তম সরদারের অত্যাচার মাত্রা ছাড়ায়।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

স্থানীয়দের বিঘার পর বিঘা জমি দখল করে ভেড়ি তৈরি করে তারা। প্রতিশ্রুতি দেয় সেজন্য চাষের লভ্যাংশ পাবেন জমিদাতারা। যারা জমি দিতে চাননি তাদের জমিতে নোনা জল ঢুকিয়ে চাষ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর ফলে জমি দিতে বাধ্য হন তাঁরাও। গ্রামবাসীদের দাবি, মাছ চাষ শুরু হওয়ার পর কয়েক বছর ঠিক মতো লভ্যাংশ পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে বখরার টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেয় উত্তম সরদাররা।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

যার ফলে অনটন শুরু হয় একাধিক পরিবারে।গ্রামবাসীদের অভিযোগ, টাকা চাইলে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর করত তৃণমূলের বাহিনী। বৈঠকের নামে ডেকে নিয়ে গিয়ে আগে থেকে জড়ো করে রাখা গুন্ডাদের দিয়ে পেটানো হত গ্রামবাসীদের।স্থানীয়দের আরও অভিযোগ, সন্দেশখালির বিস্তীর্ণ এলাকায় নদী ও পুকুরের জল লোনা হওয়ায় তারা পঞ্চায়েতের পরিশ্রুত পানীয় জলের ওপর সম্পূর্ণ নির্ভরশীল। অভিযোগ, সেই পানীয় জল মাছ চাষের ভেড়িতে দিত উত্তম – শিবুরা।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

যার ফলে বছরের পর বছর পানীয় জলের সংকটে ভুগেছেন গ্রামবাসীরা।গ্রামবাসীদের অভিযোগ, এই সব অভিযোগ পুলিকে জানানো হলেও পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। গ্রামবাসীদের দাবি, যাঁদের আটক করা হয়েছে তাঁদের ছাড়তে হবে। অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে শিবুদের।পুলিশের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়ে এক মহিলা বললেন, “যে সব ছেলেরা মা বোনের পাশে দাঁড়িয়েছে, তাদের আগে তুলেছে।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

আর যারা ১২ বছর ধরে নির্যাতন করে গেল, তাদের গায়ে হাত দিল না পুলিশ। কিন্তু, নিরাপরাধ ছেলেদের তুলে নিয়ে গিয়েছে। এটাই কী প্রশাসনের নিয়ম?যদিও পুলিশের দাবি, যাঁদের আটক করা হয়েছে, তাঁরা সকলেই দুষ্কৃতী। যারা এরকম করছে, যারা উস্কানি দিচ্ছে তাদের ছাড়া হবে না। কড়া পদক্ষেপ করা হচ্ছে। কারও কোনও অভিযোগ থাকলে আমাদের জানান। কিন্তু, কেউ আইন হাতে তুলে নিলে ছেড়ে দেওয়া হবে না।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

এরপর পরিস্থিতি কার্যত পুলিশের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়৷এর পরই পাল্টা আসরে নামে শিবু হাজরার অনুগামীরা৷ পুলিশের সামনেই তারা মহিলা সহ বিক্ষোভাকীরদের মারধর করে বলে অভিযোগ৷ এমন কি, সংবাদমাধ্যমের কর্মীদেরও মাটিতে ফেলে মারা হয়৷ ভেঙে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ৷ পত্রিকাটি মুদ্রণে যাওয়া পর্যন্ত ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। এদিকে সন্দেশখালির পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে বলে দাবি করছেন এডিজি আইনশৃঙ্খলা মনোজ ভর্মা।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

তিনি বলছেন, এখন পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আছে। এদিন দুপুরে কিছু ঘটনা হয়েছিল। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। গত তিনদিন ধরে যা ঘটছে কেন ঘটছে, কারা এর পিছনে আছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। যদিও শাহাজানের খোঁজ করতেও তাঁর মুখে একই কথা, তদন্ত হচ্ছে। সন্দেশখালি প্রসঙ্গে মুখ্যসচিব বি পি গোপালিকা জানান, সন্দেশখালি নিয়ে সরকার যা করার করছে। এদিন এডিজি, আইনশৃঙ্খলাও নবান্ন থেকে সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, সন্দেশখালির অশান্তিতে যারা ইন্ধন দিচ্ছে,

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাউকে রেয়াত করা হবে না।অশান্তি নিয়ে স্থানীয় তৃণমূলের বিধায়ক সুকুমার মাহাতো বলেন, সিপিএম-বিজেপি পরিকল্পিতভাবে আদিবাসীদের উসকানি দিয়ে লোকসভা ভোটের আগে ফায়দা তুলতে চাইছে। উত্তম সর্দার যদি অপরাধী হয়, সেক্ষেত্রে দল ব্যবস্থা নেবে বলেও জানান তিনি।এদিকে এই ঘটনা নিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘‘কিছু মানুষের, কিছু ক্ষণের জন্য হয়তো কোনও ক্ষোভ ছিল।

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

কোনও ব্যক্তির গলদ থাকতে পারে। কোনও এক ব্যক্তির সঙ্গে অন্য কোনও এক জনের সমস্যা থাকতে পারে।’’এর পরেই কুণাল বলেন, “সেই সমস্যার জন্য কংগ্রেস, সিপিএম, বিজেপি এবং আর একটা দল মানুষকে উস্কে দিয়ে সাময়িক গন্ডগোলের চেষ্টা করছে। প্ররোচনা দিয়েছে। সংযত ছিল তৃণমূল এবং পুলিশ। দু’দিন বাদে দেখা যাবে এই সমস্যা আর নেই।’’ পাল্টা ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন,

জ্বলছে সন্দেশখালি, তৃণমূল নেতার ৩ পোলট্রি ফার্ম, বাড়িতে আগুন

“এই রাজ্যে কোনও আইনের শাসন নেই। এই ঘটনা সমর্থনযোগ্য নয়। আজ যাঁরা আগুন লাগিয়েছেন, তাঁদের তো জীবনেই আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন শেখ শাহজাহান ও তাঁর ভাই আলমগিররা। ওই গ্রামের মহিলাদের গিয়ে জিজ্ঞাসা করুন, সবটা বলবে।তাই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটছে। “

Most Popular

error: Content is protected !!