Tuesday, April 16, 2024
spot_img
Homeরাজ্যকৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

কৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

স্টাফ রিপোর্টার: কৃষ্ণনগর থেকে লোকসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হচ্ছেন মহুয়া মৈত্রই! শান্তিপুরের প্রশাসনিক সভার মঞ্চ থেকে একপ্রকার স্পষ্ট করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।বৃহস্পতিবার নদিয়ার শান্তিপুরে মু্খ্যমন্ত্রীর কর্মসূচি ছিল। সেখানেই মমতা বলেন, ‘‘মহুয়াকে ওরা তাড়িয়েছে! কেন?

কৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

কারণ, মহুয়া মানুষের কথা বলেছিল।তোমরা মহুয়াকে যতই তাড়িয়ে দাও, কিন্তু মানুষের ভোটে মহুয়া জিতবে।’’ প্রসঙ্গত, মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে সংসদে ‘ঘুষ’ নিয়ে প্রশ্ন করার অভিযোগ তোলেন ঝাড়খণ্ডের বিজেপি সাংসদ নিশিকান্ত দুবে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তোলপাড় হয় রাজ্য রাজনীতি। তদন্তে নামে ‘এথিক্স কমিটি’।

কৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

তাতে দোষী সাব্যস্ত হন মহুয়া। অতঃপর তৃণমূল নেত্রী মহুয়ার সাংসদ পদ খারিজ করেন লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা। তখনও মহুয়ার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন দলনেত্রী।মন্ত্রী। বলেছিলেন, ‘‘দল মহুয়ার পাশে আছে। এই ঘটনা থেকে বিজেপির প্রতিহিংসাপরায়ণ রাজনীতি আরও এক বার প্রমাণিত হল। মহুয়াকে আত্মপক্ষ সমর্থন করে কিছু বলার সুযোগই দেওয়া হল না।

কৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

আমি এর তীব্র বিরোধিতা করছি।’’ সেই দিনই তিনি প্রথম পরোক্ষে হলেও জানিয়ে দেন, মহুয়াই কৃষ্ণনগরে তৃণমূলের টিকিট পাবেন। বৃহস্পতিবার তাতে আরও এক বার নেত্রীর ‘সিলমোহর’ পড়ল। তবে এদিনের সভায় মহুয়া প্রসঙ্গ বলতে গিয়েও রানাঘাটের সাংসদকেও নাম না করে কটাক্ষ করেন তিনি।

কৃষ্ণনগরে প্রার্থী মহুয়াই, সিলমোহর মমতার

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “রানাঘাটে আপনারা একজনকে জিতিয়েছিলেন, আমার কিছু বলার নেই। মা বোনেরা ভালো করে জানেন তিনি কী, কী করে বেড়াচ্ছেন। প্লিজ, এবার কিন্তু রানাঘাটে দয়া করে আমাদের সমর্থন করবেন।”

Most Popular