Friday, March 1, 2024
Homeজেলাহারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

বান্টি মুখার্জি, ক্যানিং: মানবিক ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ প্রশাসন। পুলিশের এমন মানবিক কাজের প্রশংসা করেছেন মহিলার পরিবার সহ এলাকার সাধারণ মানুষজন।জানা গিয়েছে, শনিবার সকালে বছর চব্বিশের এক মহিলা উদভ্রান্তের মতো বাসন্তীর কাঁঠালবেড়িয়া এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিলেন।

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

তা নজরে পড়ে স্থানীয় শিমুলতলা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ সঞ্জয় হাজরা ও এএসআই সত্যজিৎ রায়ের। তাঁরা ওই মহিলাকে উদ্ধার করে পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে আসেন।তাঁকে জিঞ্জাসাবাদ শুরু করলে বুঝতে পারেন, ওই মহিলা মানসিক ভাবে ভারসাম্যহীন। পুলিশ তাঁর নাম ঠিকানা জানার চেষ্টা করেন।

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

কিছুই সঠিক উত্তর দিতে পারছিলেন না ওই মহিলা। পুলিশও হাল ছাড়তে নারাজ। দুপুরে পুলিশ ক্যাম্পের তরফে ওই মহিলাকে পেট পুরে মাছ-ভাত খাওয়ানো হয়। খাবার খাওয়ার পর ঠিকানা উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। জানা যায়, ওই মহিলার নাম কণিকা ভুঁইয়া। বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি থানার মণিপুর পঞ্চায়েত এলাকায়।

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

এরপর যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শিমুলতলা পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশকর্মীরা ঠিকানা খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন। অবশেষে শনিবার বিকাল নাগাদ উদ্ধার হয় ওই মহিলার পরিচয় ও ঠিকানা। পুলিশ জানতে পারে, আদতে উত্তর ২৪ পরগনায় ওই মহিলার বাড়ি হলেও তাঁরা সোনারপুরের কালিকাপুর এলাকায় একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করেন।

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

পুলিশের তরফে যোগাযোগ করা হয় কণিকার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ক্যাম্পে হাজির হন ওই মহিলার মা নমিতা ভুঁইয়া, দিদি টুম্পা মণ্ডল ও এক ছোট ভাই। শিমুলতলা ক্যাম্পের পুলিশ তাঁদের হাতে হারিয়ে যাওয়া কণিকাকে তুলে দেয়।বোন কে পেয়ে খুশি টুম্পা। তিনি জানিয়েছেন, বোন কণিকা মাঝে মধ্যে চলে যেত।

হারিয়ে যাওয়া মহিলাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দিল পুলিশ

এলাকার মধ্যেই থাকত। সন্ধ্যা হলেই ফিরে আসত। শুক্রবার বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফেরেনি। আমরা অনেক খোঁজাখুঁজি করেছিলাম। শনিবার থানায় নিখোঁজ অভিযোগ জানানোর জন্য বেরিয়েছিলাম। সেই মুহূর্তে পুলিশের তরফে ফোন পাই। এভাবে যে বোনকে ফিরে পাব, তা কল্পনাও পারিনি। পুলিশবাবুদের অসংখ্য ধন্যবাদ।

Most Popular

error: Content is protected !!