Friday, March 1, 2024
Homeজেলাইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

বান্টি মুখার্জি, ক্যানিং: স্বামী বিবেকানন্দের ১৬১ তম জন্মদিনে ক্যানিংয়ের এক রক্তদান উৎসবের মঞ্চ থেকে হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে ‘দালাল’ আখ্যা দিলেন তৃণমূলের রাজ্য যুবনেতা। পাশাপাশি বিজেপি নেতাদের ‘পরিযায়ী শ্রমিক’ বললেন তিনি। এখানেও ক্ষান্ত থাকেননি তৃণমূলের রাজ্য ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুদীপ লাহা।

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

তিনি ইডি এবং সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারিও দিলেন। এছাড়াও তিনি রক্তদান মঞ্চ থেকে মীনাক্ষি মুখার্জিকেও আক্রমণ করেন। মীনাক্ষি নন্দীগ্রামের ‘তৃতীয় সন্তান’ বলে আখ্যায়িত করেন যুবনেতা। এমনকী তিনি স্বরাষ্টমন্ত্রী অমিত শাহ, কৈলাস বিজয়বর্গীদের নাম ধরে পরিযায়ী আখ্যা দেন। যুব নেতার কথায়, রাজ্যের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা রয়্যাল বেঙ্গলের আস্তানা।

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

সেখানে পরিযায়ীরা এসে বাংলার সংস্কৃতিকে নষ্ট করবে, সেটা সাধারণ মানুষ মেনে নেবেন না। তাঁরা প্রতিবাদে সরব হবেন। প্রয়োজনে ইডি, সিবিআই কিংবা পরিযায়ীদের ধরে নিয়ে ইংরেজ আমলে তৈরি লর্ড ক্যানিংয়ের ঐতিহাসিক বাড়িতে আটকে রেখে প্রতিবাদ করবেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার সাধারণ মানুষ।

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

তিনি আরও বলেন, ওরা তৃণমূলকে গালিগালাজ করছে, আমি কেন অভিজিৎ গাঙ্গুলির বিরুদ্ধে মামলা করছি? আমার বাংলার উপর আক্রমণ করছে, স্বামীজির নামে কুরুচিকর মন্তব্য করছে, এমনকী আমার বাবার উপর আক্রমণ করছে! খুব ভালো লেগেছে! যত আক্রমণ করবেন, আমাদের দল ততই শক্তিশালী হবে।

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

দল যদি বলে, কোনও সিপিএম, বিজেপির দালালকে হাইকোর্টের চেয়ারে বসে থাকতে দেব না, যদি সুপ্রিম কোর্টে মামলা করতে হয় করব। রাস্তায় দাঁড়িয়ে আন্দোলন করতে হলে আন্দোলন করব। রক্ত দিতে হলে রক্ত দেব, জেলে যেতে হলে জেলে যাব। কিন্তু ভারতবর্ষের সংবিধানকে দালালদের হাতে বিক্রি হতে দেব না। তিনি বলেন, মীনাক্ষিকে শুনলে হবে? শতরূপকে জানলে হবে?

ইডি, সিবিআইকে বেঁধে রাখার হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা

মহম্মদ সেলিমকে জানলে হবে?বাংলার বুকে রয়েছেন মমতা ব্যানার্জি, অভিষেক ব্যানার্জি। তাঁদের জানতে হবে।
এদিন রক্তদান শিবিরে প্রায় ৪০০ জন স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন। উপস্থিত ছিলেন ক্যানিং পশ্চিমের বিধায়ক পরেশরাম দাস, বিধায়ক জয়দেব হালদার, জেলা পরিষদ সদস্য সুশীল সরদার, ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি উত্তম দাস সহ বিশিষ্টরা।

Most Popular

error: Content is protected !!