Saturday, March 2, 2024
Homeজেলা৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

রবিবার একদিকে যখন ব্রিগেডে বামেদের জমায়েত রাজনৈতিক আলোচনার শীর্ষে, অন্যদিকে এদিন পৈলান থেকে কার্যত লোকসভার প্রচার শুরু করলেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কম্যান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।নতুন বছর নিজের লোকসভা কেন্দ্রে এটাই ছিল অভিষেকের প্রথম সভা।অভিষেকে কথা দিয়েছিলেন জানুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে বার্ধক্য ভাতা ডায়মন্ড হারবারে চালু করবেন।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

এদিন সেই কর্মসূচিতে বেশ কয়েক জন বয়স্ক মানুষের হাতে হাজার টাকার চেক তুলে দিয়ে অভিষেক জানান, ‘ এ বার থেকে ডায়মন্ড হারবারের ৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে মাসে হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়া হবে। তার সূচনা হল রবিবার।আমি মনে করি, এই মাননুষগুলোর মুখে হাসি ফোটানো জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

গত নভেম্বরে কথা দিয়েছিলাম যে জানুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে বার্ধক্য ভাতা ডায়মন্ড হারবারে চালু করব। ১ তারিখই সভা করতে পারতাম। কিন্তু ১ জানুয়ারি দলের প্রতিষ্ঠা দিবস। সে দিন অনেক কাজ ছিল।গত দু’মাস ধরে কী ভাবে ডায়মন্ড হারবার ঘুরে ঘুরে ৭৬ হাজার ১২০ জন বয়স্ক মানুষের রেজিস্ট্রেশন করানো হয়েছে। তার পর বেছে নেওয়া হয়েছে, কাদের একান্তই বার্ধক্য ভাতা প্রয়োজন।’

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

অভিষেকের দাবি, লোকসভার আগে নিছক প্রচারের জন্য এই প্রকল্প নয়। এই প্রকল্প আগামিদিনে সারা রাজ্যে হতে পারে। তবে নিজের লোকসভা কেন্দ্রের জন্য সাংসদ হিসাবে তিনি এই কর্তব্য পালন করেছেন।তাঁর কথায়, ‘অনেকে ভাবছেন এক বার তো বার্ধক্য ভাতা দিল, পরের মাসে পাব তো? আমি অত্যন্ত আশাবাদী যে আমাদের মা-মাটি-মানুষ বার্ধক্য ভাতা চালু করবে।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

কেন্দ্রীয় সরকারের উপর আমাদের ভরসা নেই। যেহেতু আমি কথা দিয়েছিলাম, তাই এখানে জানুয়ারি থেকে এখানে শুরু করলাম।’ তার দাবি, এমন একটি প্রকল্প সারা ভারতে কোনও সাংসদই করে দেখাতে পারেননি। এমনকি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও নন।দেশের আট কোটি মানুষের বয়স ৬০ বছরের বেশি। কেন্দ্র চাইলে কি তাঁদের আর্থিক সাহায্য করতে পারে না?

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

এতে মাসে আট হাজার কোটি টাকার খরচ হবে। আসলে মানসিকতা থাকলে রাস্তা ঠিক বার হয়ে যায়।লোকসভা ভোটের আগে অভিষেক বার বার বুঝিয়ে দিয়েছেন ডায়মন্ড হারবারকে তিনি অগ্রাধিকার দেবেন। উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘যে পঞ্চয়েতের নেতা, তাকে তো সেই পঞ্চায়েত দেখতে হবে।’ শেষে তিনি জানান, বার্ধক্য ভাতার পর এ বার ১০০ দিনের কাজের টাকা দেওয়ারও চিন্তাভাবনা করছেন।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

সাংসদের কথায়, ‘৬৬ হাজার লোক রয়েছেন ডায়মন্ড হারবারে, যাঁরা ১০০ দিনের কাজ করে টাকা পায়নি। এক-দু মাসের মধ্যে ব্যবস্থা না হলে সেটাও আমি ডায়মন্ড হারবার দিয়ে শুরু করব।’ পাশাপাশি, তৃণমূলের প্রবীণ-নবীন দ্বন্দ্ব নিয়েও মুখ খুলেছেন তিনি।তিনি বলেন, ‘আজ আমার ৩৬-৩৭ বছর বয়স। ২০ বছর,৩০ বছর বা ৪০ বছর পর আমার কর্মক্ষমতা কমবে।বয়স হলে কর্মক্ষমতা কমে। এতে অসুবিধার কী আছে!

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

তার মানে এটা নয় যে, আমি আর কাজ করব না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দল চালাচ্ছেন। আমরা, তাঁর কর্মীরা তাঁর পাশে আছি।’ সেকেন্ড-ইন-কম্যান্ড বলেন, ‘বয়স্কদের রাস্তায় থাকতে বললে অসুবিধা তো হবে। যুবদের রাস্তায় থাকতে বললে অসুবিধা কম হবে। আমাকে দল যে দায়িত্ব দিয়েছে, সুযোগ দিয়েছে সেটা পালন করছি। আমি আমার ক্ষমতা, সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করছি।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

দল নবজোয়ার, দিদির সুরক্ষা কবচ কর্মসূচি সামনে থেকে করতে বলেছে, সেটা করেছি। ২০২১-এ সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে বলেছিল, আমি করেছি। আজ আমি করতে পেরেছি। আমার বয়স ৫৬ বছর, ৬০ বছর হলে করতে পারব না।’ লোকসভার লড়াই তৃণমূল ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়বে বার্তা দিয়ে অভিষেক আরও বলেন, ‘যতদিন বাঁচব আমি জয় বাংলা বলব।

৬০ হাজারের বেশি বয়স্ক মানুষকে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া শুরু করলেন অভিষেক

তৃণমূলের পাশে আছি। ২০২৪-এ বাড়তি দায়িত্ব তো আছে। প্রার্থী হলে নিজের কেন্দ্র দেখতে হবেই। আমাকে নিজের কেন্দ্র, ডায়মন্ড হারবারে সময় দিতে হবে, অগ্রাধিকার থাকবে। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি আর জোড়া ফুল প্রতীক নিয়ে যে বুথে যেতে বলবে আমি যাব। লোকসভায় তৃণমূল ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়বে।’

Most Popular

error: Content is protected !!