Wednesday, February 28, 2024
Homeরাজ্যবলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

স্টাফ রিপোর্টার: তৃণমূলের নবীন-প্রবীণ দ্বন্দ্বের মধ্যেই হুগলির বলাগড়ে বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী ও তৃণমূলের রাজ্য যুবনেত্রী রুনা খাতুনের দ্বন্দ্ব সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছে। ফেসবুক থেকে সংবাদমাধ্যম-সর্বত্র তৃণমূল নেত্রী রুনা খাতুনের বিরুদ্ধে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন বলাগড়ের বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

অভিযোগ তুলেছিলেন, রুনা দুর্নীতিগ্রস্ত। সেই রুনা তাঁকে হুমকি দিচ্ছে বলেও দাবি করেছিলেন বিধায়ক।এবার আরও জটিল হল বলাগড়ে তৃণমূলের কোন্দল।এবার বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারীকে নিজের বিধানসভা কেন্দ্র এলাকায় ঢুকতেই বারণ করে দিল তৃণমূল। বৃহস্পতিবার বিধানসভার বাইরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই জানিয়েছেন বিধায়ক স্বয়ং।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

তিনি বলেছেন, ‘‘আমাদের নেতৃস্থানীয় মনে করি, বন্ধুস্থানীয় মনে করি, শুভানুধ্যায়ী মনে করি, সে রকম জায়গা থেকেই আমাকে ফোন করে বলা হয়েছে আপাতত কয়েকদিনের জন্য আপনি বলাগড়ে যাবেন না।’’ তবে নিজের প্রতিবাদ যে তিনি চালিয়ে যাবেন সে বিষয়ে অবশ্য স্পষ্ট করে দিয়েছেন বিধায়ক। মনোরঞ্জন জানিয়েছেন, ৭ জানুয়ারি ফেসবুক লাইভ করে তিনি আবারও নিজের মতামত জানাবেন।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

ওদিকে মনোরঞ্জনের বিরুদ্ধে থানায় সোশ্যাল মিডিয়ায় কুকথা লেখার জন্য অভিযোগ দায়ের করেছেন রুনা।তাঁর অভিযোগ, বিধায়ক তাঁর নামে আপত্তিকর শব্দবন্ধ ব্যবহার করে সমাজমাধ্যমে একটি পোস্ট দেন। রুনার দাবি, পরে বিধায়ক সেই পোস্ট মুছে দিলেও তার স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

যদিও নিজের মুছে দেওয়া সেই পোস্ট প্রসঙ্গে মনোরঞ্জন বলেছেন, ‘‘পোস্টটি করার কুড়ি সেকেন্ডের মধ্যে আমি আমার মন্তব্য মুছে দিই। যারা শকুনের মতো আমার ফেসবুকের দিকে তাকিয়ে থাকে তারা ওই অল্প সময়ের মধ্যেই স্ক্রিনশট নিয়ে তা ভাইরাল করে দিয়েছে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘সমাজে আমারও সম্মান রয়েছে। বাড়িতে ছেলেমেয়ে রয়েছে, আমাকে ধর্ষক ও খুনি বলা হয়েছিল। তাই আবেগবশত আমি গালাগালি লিখে ফেলেছিলাম।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

সেই ঘটনার জন্য আমি রুনার কাছেও ক্ষমা চাইতে পারি। আমার ওই কথা লেখা উচিত হয়নি।’’ অন্যদিকে, বুধবার রাতে জিরাটে মনোরঞ্জনের কার্যালয়ে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের একাংশের বিরুদ্ধে। শাটার ভেঙে ঢুকে টেবিল চেয়ার সব গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।হয়েছে বলে অভিযোগ । এ ব্যাপারে ফেসবুক পোস্টে মনোরঞ্জন লিখেছেন, “আমি এখন কলকাতায়।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

খবর পাওয়া গিয়েছে রুনা খাতুন না কি তাঁর দলবল পাঠিয়ে আমার বিধায়ক কার্যালয় ভাঙচুর করেছে। এ বার আমার পাল্টা দেওয়ার সময় এসেছে। আসছি আমি বলাগড়ে। এ বার খেলা জমে যাবে।” যদিও এব্যাপারে পাল্টা রুনা জানিয়েছেন, গণরোষের শিকার হয়েছেন বিধায়ক। এর সঙ্গে তৃণমূলের যোগ নেই। একই সঙ্গে বিধায়কের অনুগামী এক পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িতেও হামলা হয়েছে।

বলাগড়ে মনোরঞ্জনের নো এন্ট্রি করে দিল তৃণমূল, ‘খেলা জমে যাবে’, পাল্টা বিধায়ক

ভাঙা হয়েছে জানলার কাচ।বিধায়কের কাছে কোনও প্রমাণ থাকলে তিনি থানায় অভিযোগ করুন। উনি অযথা আমাকে আক্রমণ করছেন। বিধায়ক কোনও নীতি – নিয়ম মানেন না। আমাদের কাছে সমস্ত প্রমাণ রয়েছে। সময় হলেই বার করব।

Most Popular

error: Content is protected !!