Tuesday, February 27, 2024
Homeজেলাকুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে...

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

সানওয়ার হোসেন, কুলপি: রাজ্যের দিকে দিকে রাস্তা তৈরিতে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার নিয়ে ক্ষোভ চরমে উঠেছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের সরব হওয়ার ঘটনা বারংবার প্রকাশ্যে আসার পরও ঠিকাদার সংস্থাগুলির যে হুঁশ ফিরছে না, তা আরও একবার সমানে চলে এল।

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

দক্ষিণ ২৪ পরগনার সাগরের পর এবার কুলপিতে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার নির্মীয়মাণ রাস্তায় নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগে কাজ বন্ধ করে দিলেন গ্রামবাসীরা। অভিযোগ, রাস্তা তৈরি করার পর ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই রাস্তার পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে।

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

কুলপি ব্লকের করঞ্জলি গ্রাম পঞ্চায়েতের দামোদরপুর থেকে শ্যামনগর হয়ে রাঙাফলা (ট্যাংরারচর) পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে বেহাল হয়ে পড়েছিল। রাস্তা তৈরির জন্য জেলা পরিষদের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় প্রায় ৫১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়।

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

দু’দিন আগে রাস্তার কাজ শুরু করে ঠিকাদার সংস্থা। অভিযোগ, পিচের এই রাস্তাটি কাজ করে যাওয়ার ২৪ ঘণ্টা পর রাস্তা থেকে পিচ উঠতে শুরু করেছে। হাত দিয়ে টানলেই উঠে যাচ্ছে। গ্রামবাসীরা প্রতিবাদ জানানোর পর থেকে রাস্তা তৈরির যন্ত্রাংশ ফেলে রেখে বেপাত্তা ঠিকাদার সংস্থার কর্মীরা।

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

বিষয়টি স্থানীয় বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত ও ব্লক প্রশাসনের নজরে আনা হয়েছে। এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অভিজিৎ বৈরাগী। তিনিও নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে রাস্তা তৈরি নিয়ে সরব হয়েছেন।

কুলপিতে রাস্তা তৈরির ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই পিচ সহ স্টোনচিপ উঠে যাচ্ছে, ক্ষোভ বাসিন্দাদের

অন্যদিকে, কুলপির বিধায়ক যোগরঞ্জন হালদার জানান, যদি খারাপ কাজ হয়, গ্রামবাসীদের প্রতিবাদ জানানোর অধিকার রয়েছে। যাঁরা কাজ করছেন, তাঁদের উচিত সঠিক ভাবে কাজ করা।

Most Popular

error: Content is protected !!