Tuesday, February 27, 2024
Homeরাজ্যকাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

স্টাফ রিপোর্টার : ‘সহানুভূতি দিয়ে চাকরি হয় না।’ প্রাথমিক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় আদালতে এমনই মন্তব্য করলেন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের আইনজীবী।মঙ্গলবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহার এজলাসে প্রাথমিকের মামলার শুনানি ছিল। এদিন আদালতে প্রাথমিকের চাকরিহারাদের পক্ষের আইনজীবী অনিন্দ্য লাহিড়ি আদালতে সওয়াল করেন, কেন বলার সুযোগ না দিয়েই চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হচ্ছে?

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

তিনি বলেন, “আমরা তদন্ত অস্বীকার করছি না। কিন্তু মৃত একটি প্যানেলকে এভাবে জীবন্ত করা যায় না। বলার সুযোগ না দিয়ে কেন চাকরি থেকে বরখাস্ত? আমরা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছি। যাঁরা প্রতিবাদ করছেন, তাঁরা অংশ নেননি।” এদিন আদালতে পর্ষদের তরফে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী লক্ষ্মী গুপ্ত।

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

তিনি বলেন, সহানুভূতি উপর চাকরি হয় না। তখন বিচারপতি পাল্টা প্রশ্ন করেন, তাহলে যাঁদের বয়স উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছে, তাঁরা কী করবেন? তখন পর্ষদের আইনজীবী লক্ষ্মী গুপ্ত বলেন, “২০২০ সালে ও ২০২২ সালে নিয়োগ হয়েছে। ২০২০ সালের উপর স্থগিতাদেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। সিবিআই তদন্তে ৯৬ জনের ভুয়ো নিয়োগ পাওয়া গিয়েছে।

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

আদালত সিবিআইকে তদন্তভার দিয়েছে। সিবিআইকে তদন্ত শেষ করতে নির্দেশ দেওয়া হোক। কারণ, পুরো ৩২ হাজার নিয়োগই বেআইনি এবং সে জায়গায় নতুন চাকরি দিতে হবে, সেটা হতে পারে না। কোনও অতিরিক্ত নিয়োগ হয়নি।” এদিন বিচারপতি অমৃতা সিনহার একক বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে,

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

২০১৬ সালের প্রাথমিকের প্যানেল ফের আদালতে নিয়ে আসতে হবে। বোর্ডের উদ্দেশে বিচারপতি বলেন, তিনি ওই প্যানেল দেখতে চান। বিচারপতির বক্তব্য়, একবার যদি প্রকাশিত হয়, তাহলে বার বার কেন হবে না? তিনি বলেন, “মানুষের জীবন প্রশ্নের মুখে। টেকনিকাল পয়েন্ট নিয়ে কী হবে।

কাকে রক্ষা করতে চাইছেন? পর্ষদকে প্রশ্ন বিচারপতির

কাকে রক্ষা করতে চাইছে বোর্ড। আপনি সরকারি চাকরি দিচ্ছেন। তাই প্রশ্ন উঠছে।” অন্যদিকে সিবিআই-এর তরফে আদালতে জানানো হয়, নির্দেশ পেলে তারা পরের দিনই বাজেয়াপ্ত হওয়া প্যানেল আদালতে জমা দিতে পারে।

Most Popular

error: Content is protected !!