Wednesday, February 28, 2024
Homeজেলানুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন...

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

বান্টি মুখার্জি, ক্যানিং: মা-হারা সন্তানকে লালন পালন করে বড় করার অদম্য ইচ্ছা। অভাব অনটনের সংসার। নুন আনতে পান্তা ফুরায়।ক্যানিং থানা সংলগ্ন আইউব নগরের বিশ্বাস পরিবার রাজু বিশ্বাসের। তাঁর একমাত্র সন্তান আয়ুষ ছ’মাস বয়সে মাতৃহারা হয়। তিনি পেশায় সামান্য একজন ক্যারাটে প্রশিক্ষক। দিন আনা দিন খাওয়া।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

কীভাবে ছেলেকে মানুষ করবেন সেই চিন্তায় মহাফাঁপরে পড়ে গিয়েছিলেন রাজু। কোনও দিক চিন্তা না করে ছেলেকে বড় করে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করেন। তবে সেই কাজ ছিল যথেষ্ট কঠিন। অদম্য জেদ আর ইচ্ছাশক্তিকে পাথেয় করে ছেলেকে বড় করার চেষ্টা করেন রাজু। অবশ্য প্রাথমিক ভাবে মা-হারা সন্তানকে সাফল্যের শিখরে নিয়ে গিয়েছেন রাজু।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

১৪ বছর বয়সের আয়ুষ বিশ্বাস তাঁর বাবা রাজু ও ঠাকুরমা পারুলদেবীর স্নেহে বড় হয়েছে।মায়ের স্নেহ বঞ্চিত ছোট্ট আয়ুষ বড় হয়ে দেশমাতৃকার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চায়। বর্তমানে ক্যানিংয়ের রায়বাঘিনী উচ্চমাধ্যমিক হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। পড়াশোনায় খুব ভালো না হলেও খেলাধুলোয় অত্যন্ত ভালো।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

ক্যারাটেতে বাবার কাছে প্রশিক্ষণ নেওয়া আয়ুষ স্কুলের ক্রীড়াশিক্ষক রাজেন্দ্র নাথ বেরার নজরে পড়ে। তার পারদর্শিতা দেখে জাত চিনতে অসুবিধা হয়নি ক্রীড়াশিক্ষকের। তিনিও সমানভাবে প্রশিক্ষণ দিতে থাকেন আয়ুষকে। গত ৩ ডিসেম্বর ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট কাউন্সিল ফর স্কুল গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস আয়োজিত হয়েছিল পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোল ইন্ডোর স্টেডিয়ামে।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

চারদিনের ৬৭ তম প্রতিযোগিতায় রাজ্যে ২৬টি জেলার কয়েক হাজার ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহণ করেছিল।বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। রাজ্য ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল ক্যানিংয়ের রায়বাঘিনী উচ্চমাধ্যমিক হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র আয়ুষ।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

সেখানে সকলকে তাক লাগিয়ে রাজ্য অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে (ব্রাউন বেল্ট) প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে স্বর্ণপদক লাভ করে। পাশাপাশি ব্রাউন বেল্ট ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করায় আগামী দিনে জাতীয় স্তরে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে আয়ুষ।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

২০২৩ সালের শুরুতেই আন্তর্জাতিক স্তরে ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় নেপালে, তৃতীয় এবং জাতীয় স্তরে ক্যারাটে প্রতিযোগিতা হরিয়ানাতে প্রথম স্থান অধিকার করেছিল ছোট্ট আয়ুষ।ক্যানিং তথা রাজ্যের গর্ব আয়ুষ বড় হয়ে দেশ সেবার কাজ করতে চায়। তার কথায়, আমার মা নেই। তবে বাবা রয়েছে।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

মায়ের স্নেহ মায়া মমতা সবই বাবা ও ঠাকুরমার কাছে পেয়েছি। এছাড়াও স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারা আমাকে যথেষ্ট স্নেহ করে থাকেন। তাঁদের জন্য আজ আমি এই ন্যূনতম সাফল্য পেয়েছি। আগামী দিনে আন্তর্জাতিক স্তরে ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে স্কুল, রাজ্য এবং দেশের জন্য সম্মান উজ্জ্বল করার লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে চাই।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

ছেলের এমন সাফল্যে খুশি রাজু বিশ্বাস। তিনি জানিয়েছেন, মা-হারা সন্তানকে কতটা মানুষ করতে পেরেছি, সেটা বড় কথা নয়। আগামী দিনে যাতে দেশ ও স্কুলের মুখ উজ্জ্বল করতে পারে, সেই চেষ্টা করব।অন্যদিকে, স্কুলছাত্রের এমন সাফল্যে ক্রীড়া শিক্ষক রাজেন্দ্রনাথ বেরা ও প্রধান শিক্ষক সুমিত ব্যানার্জি সহ অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকারা আনন্দিত।

নুন আনতে পান্তা ফুরানো সংসারে বাবার স্নেহে অনূর্ধ্ব ১৪ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়ন আয়ুষ

স্কুলের প্রধান শিক্ষক সুমিত ব্যানার্জি জানিয়েছেন, আয়ুষ আমাদের স্কুলের গর্ব।আগামী দিনে যাতে আরও বড় সাফল্যের অধিকারি হতে পারে, তার জন্য স্কুল আয়ুষের পাশে সর্বদা থাকবে।

Most Popular

error: Content is protected !!