খবররাজ্য

মামলা লড়তে সরকারের খরচ ৩৩০ কোটি, অভিযোগ শুভেন্দুর, টাকা বন্ধে চিঠি কেন্দ্রকে

স্টাফ রিপোর্টার: সাধারণ মানুষের করের টাকায় রাজ্য সরকার হাইকোর্ট সুপ্রিম কোর্টে মামলা লড়ছে। সোমবার বিধানসভার সামনে দাঁড়িয়ে এই অভিযোগ করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সোমবার বিধানসভার সামনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শুভেন্দুবাবু বলেন, ‘নিয়োগ দুর্নীতি ও বিরোধী দলনেতাকে জেলে ঢোকানোর জন্য এই ২ বছরে ৩৩০ কোটি টাকা হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টে খরচ হয়েছে।

এর মধ্যে ২৯২ কোটি টাকা আমাদের কর্মচারী – পুলিশকর্মী, এদের ডিএ মেরে এক্সচেকার থেকে দিয়েছে। আর ৩৮ কোটি টাকা তৃণমূল কংগ্রেস তার ইলেক্টোরাল বন্ডের টাকা থেকে মিটিয়েছে। ২৯২ কোটি টাকা মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে অর্থ দফতর থেকে মনোজ পন্থ দিয়েছে। আইনজীবীর বকেয়া মেটানো হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের জনগণের টাকায়।’ পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর নামাঙ্কিত প্রকল্পের নাম বদল করেছে মমতার সরকার।

এমনই অভিযোগ এনে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় মৎস্যমন্ত্রী পার্শ্বত্তোম রূপেলাকে চিঠি দিয়েছেন শুভেন্দু। টুইটারে সেই খবর দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা।বিরোধী দলনেতা চিঠিতে দাবি করেছেন, প্রধানমন্ত্রী মৎস্য সম্পদ যোজনা (পিএমএমএসওয়াই) প্রকল্পের নাম বদল করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের প্রাণী সম্পদ বিকাশ উন্নয়ন মন্ত্রকের মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালাকে তিন পাতার প্রতিবাদপত্র পাঠিয়েছেন তিনি।

সেই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, পিএমএমএসওয়াই প্রকল্পকে রাজ্যে বাংলা মৎস্য যোজনা বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। মোট পাঁচটি কেন্দ্রীয় প্রকল্পের নাম মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার বদল করেছে বলে অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু।তিনি জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনাকে বাংলা আবাস যোজনা, প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনাকে বাংলা সড়ক যোজনা, জল-জীবন মিশনকে জলস্বপ্ন, স্বচ্ছ ভারত অভিযানকে মিশন নির্মল বাংলা

এবং প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনাকে খাদ্যসাথী নাম দিয়ে চালিয়ে দিচ্ছে রাজ্য সরকার। বিরোধী দলনেতার অভিযোগ, এধরনের অপরাধ করতে বাংলার সরকার সিদ্ধহস্ত। এ বিষয়ে বিস্তারিতভাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তিনি জানিয়েছেন বলে দাবি। একইসঙ্গে এই নামবদলের ‘শাস্তিস্বরূপ’ রাজ্যের বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনি পদক্ষেপ করা ও অর্থবরাদ্দ বন্ধ করার আরজি জানিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক।

Related Articles

Back to top button
error: Content is protected !!