Tuesday, May 28, 2024
spot_img
spot_img
Homeজেলা১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

সানওয়ার হোসেন, মথুরাপুর:‌ একশো দিনের কাজের প্রকল্পে দক্ষিণ ২৪ পরগনার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা প্রায় ৩৫০ কোটি টাকা। গতবছর ডিসেম্বর মাসে শেষবার কিছু টাকা পেয়েছিলেন শ্রমিকরা। তারপর থেকে আর কোনও টাকা পাননি তাঁরা। এই পরিস্থিতিতে জেলা সমবায়গুলি আগামী দিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কেন্দ্রীয় সমবায়মন্ত্রী তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহের কাছে ডেপুটেশন দেবে বলে জানা গিয়েছে।

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

অন্যদিকে, এই পাওনা আটকে থাকার ফলে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের একাধিক প্রকল্প থমকে গিয়েছে। এই প্রকল্পগুলি বন্ধ হলে সুন্দরবন তথা জেলার গ্রামীণ অর্থনীতির ওপর প্রভাব পড়বে। এছাড়া মজুরি না পেয়ে মহিলাদের সংসার চালানোও দায় হয়ে পড়েছে। নিত্যদিনের সাংসারিক খরচ, সন্তানদের পড়াশোনা, চিকিৎসা বন্ধ হয়েছে অনেক পরিবারের।

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

একশো দিনের কাজের প্রকল্পে পঞ্চায়েতের পাশাপাশি বিভিন্ন কৃষি সমবায় সমিতির মাধ্যমেও প্রকল্পের কাজ হত। এই প্রকল্পগুলির মধ্যে ছিল পশুপালন, পোল্ট্রি ফার্ম, ঔষধি গাছের নার্সারি, ফুলের নার্সারি ইত্যাদি। মজুরি না মেলায় মাঝপথে আটকে আছে প্রকল্পগুলি।মথুরাপুর-‌১ নং ব্লকের লক্ষ্মীনারায়ণপুর পাটনা সুন্দরিনী সমবায় কৃষি উন্নয়ন লিমিটেডের মাধ্যমে কাজ করেছিলেন শতাধিক স্বনির্ভর গোষ্ঠীর কয়েক হাজার মহিলা।

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

এই সমবায়ের অধীনে এক মহিলা শ্রমিক জবা সরদার বলেন, আমরা গ্রামের মানুষ। আমাদের ভরসা ছিল একশো দিনের কাজের প্রকল্প। কিন্তু দীর্ঘদিন সেই মজুরি আটকে রেখেছে কেন্দ্রের সরকার। আমরা খুব সমস্যায় আছি। প্রকল্পগুলি মাঝপথে বন্ধ হতে বসেছে। আমরা চাইছি প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি মানবিকভাবে দেখুক। আরেক শ্রমিক শিখা সরদার বলেন, আমরা সংসার চালাতে পারছি না।

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

ছেলেমেয়ের পড়াশোনা বন্ধ হতে বসেছে। পরিবারে অসুস্থদের চিকিৎসা করাতে পারছি না। আমরা চাই দ্রুত আমাদের মজুরি মিটিয়ে দেওয়া হোক।দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা সমবায়ের চেয়ারম্যান তথা রাজ্য সমবায়ের ডিরেক্টর ইন্দ্রনারায়ণ সরদার বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্প রাজ্যের সমবায় সমিতিগুলির মাধ্যমেও চলত। এই জেলায় শতাধিক সমিতি এই কাজ করেছে।

১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে জেলার শতাধিক সমবায় সমিতির পাওনা ৩৫০ কোটি টাকা

এরমধ্যে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে বেশকিছু প্রকল্প ছিল। কেন্দ্র টাকা বন্ধ করে দেওয়ায় সব আটকে গিয়েছে। মহিলাদের মজুরি দিতে পারছি না। আমরা ইতিমধ্যে কেন্দ্রের কাছে শ্রমিকদের আবেদন ও হলফনামা জমা করেছি। প্রধানমন্ত্রী, সমবায়মন্ত্রী ও গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রীকে ডেপুটেশন দেওয়া হবে।

Most Popular

error: Content is protected !!