Thursday, February 29, 2024
Homeরাজ্য‘সাংবিধানিক সঙ্কটে বসে থাকব না’, রাজ্যপালের মন্তব্যের পাল্টা সীমারেখার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

‘সাংবিধানিক সঙ্কটে বসে থাকব না’, রাজ্যপালের মন্তব্যের পাল্টা সীমারেখার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টার: রাজ্যে সাংবিধানিক সঙ্কট হলে চুপ করে থাকবেন না বলে হুঁশিয়ারি দিলেন রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস। এই প্রসঙ্গে তিনি উপমা টানেন উইলিয়াম শেক্সপিয়রের ‘হ্যামলেট’ নাটক থেকেও। সোমবার জ‌োড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ির এক অনুষ্ঠানে রাজ্যপাল বলেন, “রাজ্যে আইনগত বা সাংবিধানিক সঙ্কট তৈরি হলে এক জন রাজ্যপাল শেক্সপিয়রের হ্যামলেটের মতো ‘টু বি অর নট টু বি’-র সংশয় নিয়ে বসে থাকবেন না।

‘সাংবিধানিক সঙ্কটে বসে থাকব না’, রাজ্যপালের মন্তব্যের পাল্টা সীমারেখার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

কারণ, শিক্ষা আমাদের এটাই শেখায়।” এদিকে বিদ্যালয়ের আচার্য হিসাবে তৎপরতার জন্য রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসকে এবার প্রচ্ছন্ন হুমকি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রাজ্যপালকে যখন আচার্য করে রাখা হয়েছিল তখন এরাজ্যে মাত্র ১০ – ১২টা বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। আচার্যের চেয়ারটা সম্মানের। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় চালায় উচ্চশিক্ষা দফতর। আমরাও কখনও তাতে নাক গলাই না। কিন্তু একথা আমিও বলতে পারি না, যে আমার কথা না শুনলে অ্যাকশন নেব।

‘সাংবিধানিক সঙ্কটে বসে থাকব না’, রাজ্যপালের মন্তব্যের পাল্টা সীমারেখার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

আমরা যেন প্রত্যেকে মনে রাখি আমাদের একটা সীমারেখা আছে।’ মমতার দাবি, ‘আমি বিশ্ববিদ্যালয় স্বাধীনভাবে চলার পক্ষে। আমার মনে হয় রাজ্যপালকে কেউ হয়তো ভুল বোঝাচ্ছে।’ মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের জবাব দিয়ে বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, ‘রাজ্যপাল তাঁর মর্যাদার সীমারেখা যেমন মেনে চলছেন, মুখ্যমন্ত্রীরও সেই সীমারেখা মেনে চলা উচিত। এটাই মানুষ মনে করছে।

‘সাংবিধানিক সঙ্কটে বসে থাকব না’, রাজ্যপালের মন্তব্যের পাল্টা সীমারেখার হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর

এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও কার্যকলাপ ভারতীয় সংবিধানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। কেন্দ্র – রাজ্য সমন্বয়ের মধ্যে দিয়ে প্রশাসন চালানোর কোনও ইচ্ছা তাদের নেই। তারা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে নিজেদের সার্বভৌম রাষ্ট্র ভাবতে শুরু করেছে। ওরা সমস্ত সাংবিধানিক রীতি নীতি প্রথা ভেঙে দিতে চাইছে। তাই শিক্ষাক্ষেত্রে পুনরুজ্জীবনে রাজ্যপালের তৎপরতায় তাদের গাত্রদাহ হচ্ছে।’

Most Popular

error: Content is protected !!