Tuesday, May 28, 2024
spot_img
spot_img
Homeরাজ্য'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

‘প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়’: রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

স্টাফ রিপোর্টার: ঈদ উপলক্ষে রাজ্যবাসীকে শান্তির বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার সকালে ঈদ উপলক্ষে রেড রোডে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সকলে শান্তিতে থাকুন। কারও প্ররোচনায় পা দেবেন না। বাংলায় যাতে অশান্তি হয়, তার চেষ্টা করছে বিজেপি সরকার। কোনও ভাবে বাংলায় অশান্তি বরদাস্ত করব না।’’

'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন আরও একবার বিজেপির বিরুদ্ধে ভেদাভেদের রাজনীতি করার অভিযোগ করেন।দেশের সংবিধান এবং ইতিহাস বদলানোর অভিযোগ এনেও কেন্দ্রের সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন।মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘লোকতন্ত্র চলে গেলে সব চলে যায়। আজ দেশের সংবিধান এবং ইতিহাস বদলে যাচ্ছে। যা খুশি করছে। তার পর এনআরসি আনার কথা বলেছে। কিন্তু আমি ও সব কিছু হতে দেব না। প্রাণ থাকতে দেশ ভাগ হতে দেব না। মাথাও ঝোঁকাব না। ভরসা রাখুন। আমরা লড়াই করব, ভয় পাব না।

'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

কেউ বা কারা যদি মনে করেন মুসলিম ভোট ভেঙে দেবেন, তা সম্ভব নয়।বিজেপি বিভেদের রাজনীতি করে। আর এক বছর পর লোকসভা নির্বাচন। ঠিক হয়ে যাবে সরকারে কে থাকবে।এক বছর পর নির্বাচন। টাকা দিয়ে মুসলিম ভোট কেনার চেষ্টা চলছে রাজ্যে।আপনাদের যত লোক বাইরে কাজ করেন, তাঁরা প্রত্যেকে এসে ভোট দেবেন। সবাইকে ভোট দিতে হবে।’’ বিজেপিকে ‘গদ্দার’ আখ্যা দেন মমতা। বলেন, ‘গদ্দারদের সঙ্গে লড়তে হচ্ছে আমাকে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাগুলির সঙ্গেও লড়তে হচ্ছে। তবে আমি মাথা ঝোঁকাতে তৈরি নই।

'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

আমাদের জ্বালাচ্ছে। আরও জ্বালাবে। তবে আমরা লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত।’ একই সঙ্গে রেড রোডের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে সকলকে এক জোট হওয়ার বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বলে রাখলেন, সকলে এক জোট হলে কেন্দ্রের গদি উল্টে যেতে পারে। তাঁর কথায়, ‘‘তাঁরাই মানুষ, যাঁরা মানবিক। যাঁরা সবাইকে নিয়ে চলেন, তাঁরাই দেশের নেতা। এ রকম ভাঙচুর করে দেশের নেতা হওয়া যায় না। আমি প্রার্থনা করব যেন এই দাদাগিরি আটকে দেওয়া হয়।

'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

আমরা একসঙ্গে হলে চেয়ার নড়ে যাবে।’’সাধারণ মানুষের উদ্দেশে মমতার বার্তা, “কোনও রাজনৈতিক দলের প্ররোচনায় পা দেবেন না। ভয় পাবেন না। আমরা আছি। আমরা একসাথে থাকব। বাংলা গড়ব। দেশ গড়ব। আমরা দাঙ্গা চাই না। আপনারা শন্তি বজায় রাখুন।” এদিনের মঞ্চ থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও সম্প্রীতির বার্তা দেন।তিনি বলেন, ‘‘যারা দেশ ভাগ করতে চাইছে, তাদের পরিণতি কী হবে, তা আগামী দিনে স্পষ্ট হয় যাবে।

'প্রাণ থাকতে এনআরসি নয়': রেড রোড থেকে হুঙ্কার মমতার

ধর্মের নামে ভেদাভেদ তৈরির চেষ্টা করছে অনেকে। প্ররোচনায় পা দেবেন না। যে চাঁদ দেখে ইদ পালন করা হয়, তার কি কোনও ধর্ম আছে? হিন্দুদের পরবও তো চাঁদ দেখে হয়। শরীরে যে রক্ত বইছে, তারও কোনও ধর্ম হয় না। বাংলায় ধর্মের নামে কোনও ভেদাভেদ নেই। আর সেই জন্যই বাংলা বাকি সব রাজ্যের থেকে আলাদা।’’

Most Popular

error: Content is protected !!