Sunday, May 19, 2024
spot_img
Homeদেশদেশে এবার স্বাভাবিক হবে বর্ষা, কম দক্ষিণবঙ্গে, দুর্যোগ পুজোয়

দেশে এবার স্বাভাবিক হবে বর্ষা, কম দক্ষিণবঙ্গে, দুর্যোগ পুজোয়

স্টাফ রিপোর্টার : ভারতে বর্ষা আসে মৌসুমি বায়ুর হাত ধরে। আরও বলা ভাল দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর হাত ধরে। মঙ্গলবার মৌসম ভবন মোসুমি বায়ুর হাত ধরে দেশে বর্ষার আগমন নিয়ে বার্তা দিয়েছে। জানিয়েছে, ২০২৩’র বর্ষা দেশে ঠিক সময়েই পা রাখবে ও বিদায় নেবে। এল নিনো থাকা সত্ত্বেও বর্ষায় বৃষ্টিপাতের ঘাটতি থাকবে না। স্বাভাবিক থেকে স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে এ বছর। তবে বাংলার ক্ষেত্রে এই বর্ষার ছন্দপতনের বিস্তর সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরবঙ্গে স্বাভাবিকের থেকে বেশি ও দক্ষিণবঙ্গে স্বাভাবিকের থেকে কম বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

দেশে এবার স্বাভাবিক হবে বর্ষা, কম দক্ষিণবঙ্গে, দুর্যোগ পুজোয়

বর্ষা আসার আগে কোনও ঘূর্ণিঝড় বাংলার দিকে ধেয়ে না এলেও বর্ষার পরে কিন্তু ধেয়ে আসতে পারে, এমন সম্ভাবনাও থাকছে। বিশেষ করে বাঙালির দুর্গাপুজোর সময়। মৌসম ভবনের এই পূর্বাভাসের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না বাংলার পঞ্জিকা বিশারদরাও। তাঁদের দাবি, এবার একটি বিরল যোগ পড়েছে দুর্গাপুজোর সময়। মা এবার আসছেন ও যাচ্ছেন ঘোড়া বা ঘোটকে। যার ফল ছত্রভঙ্গ। অর্থাৎ প্রবল ঝড়বৃষ্টি। খুব কম এই যোগ দেখা যায়। মা সাধারণত এক বাহণে আসেন ও অপর বাহণে যান। কিন্তু স্মরণাতীতকালে এই বিরল যোগ তৈরি হয়েছে। যার সার মর্ম, বাংলার সর্বশ্রেষ্ঠ উৎসব এবার প্রবল দুর্যোগের মধ্যে অনুষ্ঠিত হতে পারে।

দেশে এবার স্বাভাবিক হবে বর্ষা, কম দক্ষিণবঙ্গে, দুর্যোগ পুজোয়

এদিকে, এপ্রিলের গরমে নাজেহাল সকলে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় তাপপ্রবাহের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।হওয়া অফিস জানিয়েছে, এপ্রিল ও মে মাস জুড়েই কার্যত বাংলা ও পূর্ব ভারতের বিস্তীর্ণ এলাকায় তাপপ্রবাহ চলবে। বইবে গরম হাওয়া ‘লু’ও। আর তাই তাঁরা এই গরম থেকে আমজনতা যাতে সাবধান থাকেন সেই বিষয়েও সতর্কবার্তা জারি করেছে। বলা হয়েছে, দক্ষিণবঙ্গের পশ্চিমের জেলাগুলিতে এইসময় ৪৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা ছুঁয়ে ফেলতে পারে। দক্ষিণবঙ্গের অনান্য এলাকায় তা ৪০ ডিগ্রির আশেপাশে থাকবে। উত্তরবঙ্গের সমতল এলাকাতে তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি থেকে ৪০ ডিগ্রির মধ্যে থাকবে। পার্বত্য এলাকায় তা ৩০ ডিগ্রির আশেপাশে থাকবে।

দেশে এবার স্বাভাবিক হবে বর্ষা, কম দক্ষিণবঙ্গে, দুর্যোগ পুজোয়

এপ্রিল মাসের শেষদিকের আগে বাংলায় ঝড়বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। যদিও বা তা হয় তাহলে তা ছোট ছোট এলাকায় হবে। বড় এলাকাজুড়ে তার কোনও প্রভাব পড়বে না। তাই আমজনতাকে এপ্রিল ও মে মাসজুড়ে তাপপ্রবাহের হাত থেকে সাবধান থাকতে হবে। বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৪টে পর্যন্ত বাড়িতে থাকলেই ভালো হয়। বাড়ির বাইরে বার হলেও কোনও পরিশ্রমের কাজ না করা। সেই সঙ্গে জল বার বার খেতে হবে ও ঢিলাঢালা জামা পরতে হবে।

Most Popular

error: Content is protected !!