Tuesday, May 28, 2024
spot_img
spot_img
Homeজেলাশিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

শিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

প্রদীপকুমার সিংহ, শিয়ালদহ: শিশুমৃত্যুকে কেন্দ্র করে সোমবার ধুন্ধুমার অবস্থা হল কসবা এলাকায়। তার রেশ পড়ে বালিগঞ্জ বন্ডেল গেটে ব্রিজের ওপর। সেখানে বেশকিছু পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করা হয় এবং ট্রেন অবরোধ করা হয় বাদশা কাশ ও বন্ডেল গেটের মাঝখানে রেললাইনে।বন্ডেল ব্রিজের উপর দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের একটি গাড়িতে ধরিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।এমনকী ব্রিজের উপর দিয়ে দমকলের গাড়ি যাচ্ছিল। সেই গাড়ি লক্ষ্য করে শুরু হয় ইঁটবৃষ্টি। বালিগঞ্জে রেল অবরোধের কারণে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার সমস্ত স্টেশনে ট্রেন চলাচল বিপর্যস্ত হয়।

শিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

সোমবার সপ্তাহের প্রথম দিনে দুপুর দুটো থেকে অবরোধ শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের দাবি, ওই এলাকায় একটি খুনের ঘটনা ঘটেছে। সেই আসামিদের ধরার দাবিতেই প্রথমে এলাকায় সংঘর্ষ বাধে। পরে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর ও তারপরে রেল অবরোধ হয়। পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায় সাধারণ মানুষকে ছত্রভঙ্গ করতে। আরপিএফের প্রচুর কর্মীকে সেখানে মোতায়েন করা হয়েছে। শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার বারুইপুর, ক্যানিং, লক্ষ্মীকান্তপুর, ডায়মন্ড হারবার এবং বজবজ শাখাতেও ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে।

শিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

প্রায় দু’ঘণ্টা অবরোধ চলে। অবরোধের কারণে আটকে পড়েন নিত্যযাত্রীরা। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার শেষ দিনে আটকে পড়েন বহু পরীক্ষার্থী।স্থানীয় সূত্রে খবর, একটি শিশুকন্যা খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাদানুবাদ হয়। তারপর রণক্ষেত্র আকার ধারণ করে এলাকা। শেষে পুলিশ দুই মহিলাকে গ্রেপ্তার করে। সেই মহিলাদের ছাড়ানোর জন্য জনতা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে বলে পুলিশ মনে করে।

শিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

রেল অবরোধের ফলে দক্ষিণ শাখার সোনারপুর, বারুইপুর সহ বিভিন্ন স্টেশনে বেশ কিছু ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়ে। নিত্যযাত্রীদের ভোগান্তির শিকার হতে হয়। নিহত শিশুটির অভিভাবককে সরকার থেকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।এ বিষয়ে ডিসি এসইডি শুভঙ্কর ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট প্রকাশ্যে না এলে যৌন নির্যাতন হয়েছে না কি বোঝা যাবে না।

শিশুর মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ, পুলিশের গাড়িতে আগুন, রেল অবরোধ, দুর্ভোগ যাত্রীদের

আমাদের মৃতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা রয়েছে। ভাঙচুরের ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে। মূলত বহিরাগতরাই এই পরিস্থিতি তৈরি করেছে। আমরা ভিডিয়ো দেখে তাঁদের খোঁজ চালাচ্ছি। এদের মধ্যে ৪ জনকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করার পরও কেন এই ভাঙচুর চলল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’’

Most Popular

error: Content is protected !!