Friday, April 19, 2024
spot_img
Homeরাজ্যচাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

স্টাফ রিপোর্টার : নিয়োগ দুর্নীতিতে শুক্রবার গ্রেফতার হয়েছেন হুগলির তৃণমূল নেতা শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়।শনিবার তাকে আদালতে তোলা হলে ২ দিনের ইডি হেফাজতের নির্দেশ দেয় বিচারক।ফের তাঁকে ১৩ মার্চ ব্যাঙ্কশালের বিশেষ আদালতে পেশ করা হবে। এদিন আদালতে চাঞ্চল্যকর দাবি করে ইডি। তদন্তকারীদের দাবি, দুর্নীতির গোড়া এই শান্তনুই। তাঁর কথাতেই তাপস মণ্ডলকে ১৯ কোটি টাকা দিয়েছিলেন কুন্তল ঘোষকে।বেনামে শান্তনুর প্রচুর সম্পত্তির খোঁজ পাওয়া গিয়েছে।

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

নামে – বেনামে শান্তনুর প্রচুর সম্পত্তির খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। রাতারাতি কী করে সে এত সম্পত্তির মালিক হল তা জানতে চান গোয়েন্দারা। এছাড়াও ইমান কনস্ট্রাকশন নামে শান্তনুর স্ত্রীর নামে থাকা কোম্পানির মাধ্যমে কালো টাকা সাদা করা হয়েছে। কালো টাকা সাদা করতে বলাগড়ে অসম রোডের পাশে ধাবা তৈরি করে সে। আদালতে ইডি জানায় রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন দফতরের কর্মী শান্তনুর বেতন বছরে ৬ লক্ষ টাকার বেশি হওয়ার কথা নয়। অথচ তিনি প্রতি বছর তার থেকে অনেক বেশি বিনিয়োগ করেছেন।

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

একথা জানিয়ে কুন্তলকে ১৪ দিনের জন্য হেফাজেত চায় ইডি।এদিন শান্তনু দাবি করেন, জেলে যারা রয়েছে তাঁরা তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন। তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলেও দাবি করেন তিনি। দু’পক্ষের সওয়াল-জবাবের পর জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন বিচারক। শান্তনুকে ২ দিনের ইডি হেফাজতে পাঠানো হয়।এদিকে শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে বিস্ফোরক দাবি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের। ইডি-র দাবি, চাকরিপ্রার্থীদের চাকরি করে দিতে সরাসরি মানিকের কাছে সুপারিশ করতেন শান্তনু।

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

প্রত্যেক চাকরিপ্রার্থী পিছু ৪-৫ লক্ষ টাকা করে নিতেন তিনি। যে ৩১২ জন চাকরিপ্রার্থীর তালিকা পাওয়া গিয়েছিল শান্তনুর বাড়ি থেকে, তার মধ্যে ২০ জনের চাকরি করে দিয়েছিলেন। ওই ২০ জন চাকরিপ্রার্থী সম্পর্কে বিশদ তথ্য মিলেছে বলে দাবি ইডি সূত্রের।ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, যে ৩১২ জনের তালিকা শান্তনুর বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়, তার একটি প্রতিলিপি মিলেছে মানিকের বাড়িতেও। শুধু তাই নয়, শান্তনুর পরিবারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেও চাকার লেনদেন হয়েছে বলে দাবি ইডি-র।

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

কিছু টাকা শান্তনু নগদে এবং কিছু টাকা পরিবারের সদস্যদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে শান্তনু গ্রহণ করেছিলেন বলে দাবি।যে ২০ জনকে শান্তনু চাকরি পাইয়ে দিয়েছিলেন বলে মনে করছে ইডি, আগামী সপ্তাহে তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে।ইডি সূত্রে দাবি, কুন্তল ঘোষ শান্তনুকে নগদে ধাপে ধাপে ৭০-৮০ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন।শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়ের ২০টি সম্পত্তির হদিশ পেয়েছে ইডি। ইডি-র দাবি, বলাগড়ে শান্তনুর বিলাসবহুল দোতলা বাড়ি রয়েছে।

চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে শান্তনু নিতেন ৪-৫ লক্ষ টাকা, সম্পত্তি অগাত, দাবি ইডির

গোটা বাড়ি ৭টি সিসি ক্যামেরায় মোড়া। বাড়ির বাইরের গ্যারেজে রয়েছে দুটি গাড়ি, বারান্দায় রয়েছে ট্রেডমিল, জিরাটের আসাম রোডে বিলাসবহুল ধাবার হদিশ !এই ধাবার কর্মীদের দাবি, এই ধাবার মালিক শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় । বন্ধ ধাবার ভিতরে রয়েছে লাউঞ্জ, হুক্কাবার। ধাবার উল্টোদিকে রয়েছে ইচ্ছেডানা গেস্ট হাউস, এর মালিকও শান্তনু, দাবি স্থানীয়দের। বলাগড়ে বিলাসবহুল রিসর্টের সন্ধান মিলেছে , যার মালিক শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়।

Most Popular