Friday, April 19, 2024
spot_img
Homeরাজ্যমুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

স্টাফ রিপোর্টার: গ্রেফতার হওয়ার ৮ ঘণ্টার মধ্যেই জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা ও আইনজীবী কৌস্তভ বাগচী৷মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের অভিযোগে মাঝরাতে কংগ্রেস নেতাকে গ্রেপ্তার করেছিল বড়তলা থানার পুলিশ।পরে তাকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে ১ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে শর্তসাপেক্ষ জামিন পান। বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘি উপনির্বাচনে কংগ্রেসের জয়ের পরে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছু মন্তব্য করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন অধীরের কন্যার আত্মহত্যা এবং তাঁর গাড়িচালকের মৃত্যু নিয়ে তিনি ‘অনেক কথা’ জানেন।

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

তিনি ‘মুখ খুললে’ বিপদ হবে! তার জেরেই শুক্রবার পাল্টা সাংবাদিক বৈঠক করেন কৌস্তুভ। সেখানে তিনি তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন আমলা দীপক ঘোষের একটি বইয়ের প্রসঙ্গ তুলে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘ব্যক্তি আক্রমণ’ করেন বলে অভিযোগ। কৌস্তুভ তাঁর সাংবাদিক বৈঠকে বলেছিলেন, তিনি দীপকের লেখা বইয়ের ‘সফ্‌ট কপি’ ছড়িয়ে দেবেন। আরও বলেছিলেন, এর জন্য তাঁর বা তাঁর কোনও সতীর্থের কোনও ক্ষতি হলে তার জন্য ‘দায়ী’ থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। তিনি বলেছিলেন, “দুটো হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর দিয়েছি। দীপক ঘোষ মমতাকে নিয়ে যা লিখেছিলেন, তার সফ্‌ট কপি চাইলেই যে কেউ পাবেন।” এরপর শুক্রবার গভীর রাতে তাঁর ব্যারাকপুরের বাড়িতে হানা দেয় পুলিশ। জানা গিয়েছে, তাঁর বিরুদ্ধে অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগ আনে পুলিশ৷

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

এরপর তিনি সংবাদ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া দেন যে, তাঁকে হেনস্থা করা হচ্ছে। কৌস্তভ সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করে জানান, ‘অবশেষে গ্রেফতার হলাম।’ শনিবার গ্রেফতারের সময় কোন ধারায় তাঁকে গ্রেফতার করা হচ্ছে, তা নিয়েও পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় কৌস্তুভের। সকালের দিকে পুলিশের নতুন বাহিনী যায় তাঁর বাড়িতে। পরে সেখানেই গ্রেফতার করা হয় এই আইনজীবী নেতাকে।পুলিশ সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্য, উস্কানিমূলক বক্তব্য সহ ভারতীয় দণ্ডবিধির বেশ কয়েকটি ধারায় তাঁকে গ্রেফতার হয়। এ দিন সকাল আটটা নাগাদ কৌস্তভ বাগচীকে সরকারি ভাবে গ্রেফতার করা হয়৷

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

গ্রেফতারির পর কৌস্তুভ বলেন, ‘‘বিনা কারণে আমায় হয়রানি করা হচ্ছে। এখানে আইনের শাসন নয়, শাসনের আইন চলছে। আমায় গ্রেফতার করায় আমার জয় হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী ভয় পেয়ে গিয়েছেন!’’ তার পর তাঁকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলে পুলিশ৷এদিকে কৌস্তভ বাগচীর গ্রেফতারের প্রতিবাদে কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা বিভিন্ন জায়গায় পথ অবরোধ শুরু করেন।আন্দোলনকারীদের দাবি, সাগর দিঘী নির্বাচনে তৃণমূলের পরাজয় অধীর চৌধুরীকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পাশাপাশি রাতের অন্ধকারে কংগ্রেস নেতা কৌস্তব বাগচীকে পুলিশ দিয়ে অনৈতিকভাবে গ্রেফতার করা হয়ছে। যতক্ষণ পর্যন্ত কৌস্তভকে নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়া হচ্ছে, তাঁরা আন্দোলন থেকে পিছু হটবে না।গ্রেপ্তার করার পর এদিন তাঁকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলে পুলিশ৷

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

সরকারি আইনজীবী আগামী ১০ মার্চ পর্যন্ত কৌস্তভের পুলিশ হেফাজতের আর্জি জানান৷পাল্টা কৌস্তভের হয়ে সওয়াল করতে গিয়ে বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য সহ অন্যান্য আইনজীবীরা দাবি করেন, কোনও বইয়ের অংশ তুলে বক্তব্য রাখা অপরাধ হতে পারে না৷ সেই বই বাজারেও পাওয়া যাচ্ছে৷নোটিস ছাড়াই পুলিশ কীভাবে কৌস্তুভকে গ্রেফতার করল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও পুলিশ মধ্যরাতে অভিযুক্তের বাড়ি গেল কীভাবে, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। আগামিদিনে তো বিচারপতির বিরুদ্ধে পুলিশ এমন করতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি ৷ কৌস্তভের বাড়িতে যেভাবে গভীর রাতে পুলিশ হানা দিয়েছে, তা জঙ্গিদের গ্রেফতারের সময় করা হয় বলেও অভিযোগ করেন কংগ্রেস নেতার পক্ষে সওয়াল করা আইনজীবীরা৷

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

আইনজীবীদের দাবি, পুলিশের এই ভূমিকায় আতঙ্কিত আইনজীবী। আদালতে পদক্ষেপ করার দাবি জানান তাঁরা। কৌস্তভ বাগচির গ্রেপ্তারির প্রতিবাদে সরব হন আইনজীবীরা। পাল্টা সরকারি আইনজীবী বলেন, বেশ কিছু বক্তব্য প্রকাশ্যে অশান্তির জন্য করা হয়েছে। এর তদন্ত প্রয়োজন।তদন্তকারী অফিসার ও ওসিকে শোকজের দাবিতে শুনানির মাঝেই হট্টগোল শুরু করে দেন প্রায় ১০০ খানেক আইনজীবী। বিরক্ত হয়ে এজলাস ছেড়ে বেরিয়ে যান বিচারক। পরে অবশ্য ফিরে এসে রায়দান করেন বিচারক। দু’পক্ষের আইনজীবীদের সওয়াল-জবাব শেষে পরে কৌস্তভের জামিনের নির্দেশ দেন বিচারক।১ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পান তিনি।

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

তবে প্রতিদিন কৌস্তভকে থানায় হাজিরা দিতে হবে। আগামী ৫ এপ্রিল আদালতে হাজিরা দিতে হবে কংগ্রেস নেতাকে। পরবর্তী শুনানি ৫ এপ্রিল।এদিন ব্যাঙ্কশাল আদালত থেকে বেরিয়ে ন্যাড়া হন কৌস্তভ।তাঁর মন্তব্য, ‘‘ মমতার রাতের ঘুম খেড়ে নেব।যত দিন না মমতা সরকারকে উৎখাত করছি, তত দিন মাথার চুল রাখব না।’’ তবে এদিন কংগ্রেস নেতার গ্রেফতারি নিয়ে দিনভর টানাপোড়েন দেখা যায় রাজনৈতিক মহলে।নিজের ফেসবুক পেজে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ এই গ্রেপ্তারির বিরোধিতা করেছেন।যদি কুণালের এই মতের সঙ্গে সহমত নয় তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস। দলের তরফে এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যের মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেন, এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি কুৎসা করা হয়েছে, যেভাবে অপমান করা হয়েছে, তার প্রতিবাদ তো আমরা জানাবই।

মুখ পুড়ল পুলিশের, জামিন পেলেন কংগ্রেস নেতা কৌস্তভ বাগচী

যাঁরা এই ধরনের বিকৃত মানসিকতা নিয়ে চলেন তাঁদের জন্য আইনী ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। সেই মতোই আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।বরিষ্ঠ তৃণমূল নেতা তথা বরাহনগরের বিধায়ক তাপস রায়ও একই সুরে কৌস্তুভের সমালোচনা করেছেন।কৌস্তভের গ্রেফতারির ইস্যুতে অধীর চৌধুরী বলেন,’সমালোচনা সহ্য করতে পারেন না মুখ্যমন্ত্রী। কৌস্তভের পাশে আছি।পথে নেমে প্রতিবাদ করবে কংগ্রেস।কোস্তুভের পাশে দাঁড়িয়েছেন নওশাদ সিদ্দিকীও। এছাড়াও পাশে দাঁড়িয়েছেন একাধিক বিরোধী নেতারা। সব মিলিয়ে কৌস্তভের গ্রেফতারি নিয়ে পুরো দিনটাই রাজনৈতিক টানাপোড়নের সাক্ষী থাকলো রাজ্যবাসী।

Most Popular