Friday, April 19, 2024
spot_img
Homeরাজ্যচাকরি গিয়েছে স্বামীর, হতাশায় আত্মঘাতী স্ত্রী

চাকরি গিয়েছে স্বামীর, হতাশায় আত্মঘাতী স্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: স্বামীর গ্রুপ ডি চাকরি বাতিল হয়েছে। হতাশায় গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হলেন স্ত্রী। রবিবার সকালের এই ঘটনায় রীতিমত শোকের ছায়া নেমে এসে হুগলির বলাগড়ে।স্থানীয় সূত্রে খবর, বলাগড়ের সীজা কামালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গৌড়নই গ্রামের বাসিন্দা প্রতাপ ঘোষ। তাঁর স্ত্রী মৌমিতা ঘোষ (৩২)। ২০১৮ সালে গ্রুপ ডি পদে চাকরি পান প্রতাপ। ডুমুরদহ ধ্রুবানন্দ হাইস্কুলে চাকরি করছিলেন।

চাকরি গিয়েছে স্বামীর, হতাশায় আত্মঘাতী স্ত্রী

তবে নিয়োগ দুর্নীতির তদন্ত শুরু হতেই ফেঁসাদে পড়েন প্রতাপ ঘোষ। এরপর হাইকোর্টের নির্দেশে ১ হাজার ৯১১ জন অযোগ্য গ্রুপ ডি কর্মীর চাকরি চলে যায়। সেই তালিকায় ছিলেন প্রতাপও। এরপর চাকরি চলে যেতেই সংসারে নিত্যদিন শুরু হয় অশান্তি।এরপর রবিবার সকালে স্বামী মাঠে গেলে ঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন মৌমিতা।প্রতাপ ঘোষের ছেলে জানান, বাবা চাকরির জন্য ৭ লক্ষ টাকা দিয়েছিল।

চাকরি গিয়েছে স্বামীর, হতাশায় আত্মঘাতী স্ত্রী

মা দিয়েছিলেন ৮০ হাজার টাকা। চাকরি বাতিল হওয়ার পরও বাড়িতে অশান্তি শুরু হয়ে যায়। প্রতিবেশীরা জানান, বিভিন্ন জায়গায় ধারদেনাও হয়ে যায় তাঁদের। তার জেরে মৌমিতাদেবী আত্মঘাতী হয়েছেন বলে অনুমান তাঁদের। অপরদিকে, মৃতের পরিবারের দাবি, জামাইয়ের চাকরির জন্য জমি জমা বেচে টাকা দিয়েছিলেন তাঁরা।

চাকরি গিয়েছে স্বামীর, হতাশায় আত্মঘাতী স্ত্রী

চাকরি পাওয়ার পর সেই টাকা মেয়ের কাছ থেকে ফেরত চান। সেই মতো মৌমিতা বারংবার প্রতাপকে জানিয়েছিলেন টাকা ফেরতের জন্য যা নিয়ে নিত্যদিন অশান্ত লেগে থাকতে। পরিবারের অভিযোগ, তাঁদের মেয়েকে খুন করা হয়েছে।দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ।

Most Popular