Sunday, April 14, 2024
spot_img
Homeদেশবাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি...

বাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি হতে পারে

অশোক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কলমে ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচন

আসন্ন ত্রিপুরার বিধানসভা নির্বাচন এ কংগ্রেসের সঙ্গে সিপিএমসহ বামফ্রন্টের জোট হলেও কোন কোন আসন কে কাকে ছাড়তে পারে সে ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত হয়নি। উভয় দল চাইছে এই বিষয়টি একটি বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাবের ভিতর দিয়ে সমাধান হোক। তবে এর ভিতর একটা মারপ্যাঁচ রয়েছে। তা হল সিপিএম কখনও তাদের জেতা আসনগুলি কংগ্রেস কে ছাড়বে না। এটা সিপিএম স্পষ্ট করে দিয়েছে। এর বাইরেও একটা বিষয় হল বিগত ভোটে সিপিএম যেখানে যেখানে হেরেছে। সেখানে কংগ্রেসের চেয়ে সিপিএম বেশি ভোট পেলে তা নিয়েও দর কষাকষি চলছে।

বাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি হতে পারে

এক্ষেত্রেও সিপিএম বেশি ভোট পাওয়া কেন্দ্রগুলি নিজেদের জন্য রাখতে চাইছে। যদিও কংগ্রেস সিপিএমের সব আবদার মানার ব্যাপারে অতটা উদার হতে পারেনি। ফলে দর কষাকষি অব্যাহত রয়েছে। তবে এর ভিতর কংগ্রেস তাদের প্রার্থী তালিকা ঠিক করে ফেলেছে। সব ঠিক থাকলে আজ বুধবার ২৫ জানুয়ারি ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারে। আসলে প্রদেশ কং সভাপতি বীরজিৎ সিনহা এ নিয়ে সাংবাদিক দের সঙ্গে আলাপচারিতার সময় এমন মনোভাব ব্যক্ত করেছেন।

বাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি হতে পারে

তাঁর দাবি সর্বভারতীয় কংগ্রেস কমিটির অনুমোদন নিয়ে এই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতে চলেছে আজ বুধবার। উপজাতি আঞ্চলিক দল তিপরা মথার সঙ্গে জোট তৈরির ব্যাপারে কংগ্রেস কি আগ্রহী? এই প্রশ্নের উত্তরে প্রদেশ সভাপতি বলেন, ওই দলের প্রতি আমাদের সহানুভূতি রয়েছে। তবে এই বিষয়টি আগামী কয়েকদিন পর স্পষ্ট হয়ে যাবে। এদিকে মঙ্গলবার বিকেলে সিপিএম কংগ্রেসের জন্য দশটি আসন ছেড়ে তাদের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে চেয়েছিল। কিন্তু কংগ্রেস এ নিয়ে আপত্তি তোলায় তা ভেস্তে যায়।

বাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি হতে পারে

ফলে সিপিএম প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেনি। কংগ্রেসের দাবি ২৫টি আসন দিতে হবে। এর অন্যথা হলে মেনে নেবে না। ফলে একটা জটিলতা তৈরি হয়ে রইল। সব মিলিয়ে যা পরিস্হিতি তৈরি হয়েছে তাতে এই জোটে ফাঁটল দেখা দিতে পারে। এমনটাই রাজনৈতিক মহল মনে করছে।এদিকে ভোট এর দিনক্ষণ ঘোষণা হতেই নিজের কেন্দ্রে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সাহা প্রচারে নেমে পড়েছেন। দলের কর্মী ও নেতাদের নিয়ে কখনও হুডখোলা জিপে কখনও বাড়ি বাড়ি ঢুকে এই সরকারের পাঁচ বছরের উন্নয়ন তালিকা নিয়ে হাজির হচ্ছেন।

বাম ও কংগ্রেস জোট এর আসন ভাগাভাগি নিয়ে মতানৈক্য কি ফাঁটল তৈরি হতে পারে

কার্যত মানিকবাবু প্রচারে কোনও ফাঁক রাখতে চাননা। তাই একেবারে সময় নষ্ট করছেন না। নিজের বিধানসভা টাউন বড়দোয়ালী কেন্দ্রে সেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন। মানুষের ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছেন। মুখ্যমন্ত্রী প্রচারের মাঝে বলেছেন , মানুষ যেভাবে তাঁকে সমর্থন জানাচ্ছে । তাতে আসন্ন ভোটে পদ্ম র জয় শুধু সময়ের অপেক্ষা।

Most Popular