Friday, April 19, 2024
spot_img
Homeজেলাবারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

প্রদীপ কুমার সিংহ, বারুইপুর : বারুইপুর রেলগেটের মাঝ রাস্তায় যত্রতত্র দাঁড়িয়ে চলছে যাত্রী ওঠানামা। রাস্তায় যাত্রী তোলার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে অটো ও টোটো। বিশেষ করে রাসমণি স্কুলের পাশ থেকে এসে ডান দিকে ঘুরতেই গেট পড়ার আগে অটো ও টোটো চালকদের সাম্রাজ্য চলছে বলে অভিযোগ। যদিও ট্রাফিক পুলিশ সেখানে দাঁড়িয়ে নির্বিকার থাকে বলেও অভিযোগ।

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

এক ট্রাফিক পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তারা নিরুপায় কিছু করার নেই তাঁদের।গজিয়ে উঠছে একের পর এক টোটো স্ট্যান্ড। সামান্য হেঁটে যাওয়ার জায়গা খুঁজতে হিমশিম খেতে হয় মানুষজনকে। অভিযোগ, অ্যাম্বুলেন্সে করে রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে রোগীর প্রাণান্তকর অবস্থা হয়। এমনকি সঠিক সময়ে স্টেশনে গিয়ে ট্রেন ধরা যায় না বলেও অভিযোগ। স্কুলের পড়ুয়ারাও সঠিক সময়ে স্কুলে যেতে পারে না।

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

প্রতিবাদ করলেও, দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে অটো ও টোটো চালকদের দাদাগিরি। নেই কোনও ট্রাফিক পুলিসের নজরদারি। এমনই চিত্র বেলা থেকে রাতের বারুইপুর স্টেশন মদারাট রোডের ও রেলগেট এলাকায়। প্রতিদিন যাতায়াতে নাভিশ্বাস উঠছে মানুষজনের। অভিযোগ, সব দেখে জেনেও নীরব দর্শকের ভুমিকা নিয়েছে বারুইপুর পুরসভা, পুলিস ও প্রশাসন। সবাই যেন ঘুমিয়ে রয়েছেন। এই প্রসঙ্গে বারুইপুর পুরসভার চেয়ারম্যান শক্তি রায়চৌধুরী বলেন, খুবই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে মানুষজনকে এই অভিযোগ পেয়েছি।

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

আমি মহকুমাশাসক, থানাকে এই বিষয়ে চিঠি দিয়ে ব্যবস্থা নিতে বলব। বারুইপুর মহকুমাশাসক সুমন পোদ্দার বলেন, বিষয়টি দেখবো। বারুইপুর স্টেশন রোড মদারাট রোড নামেই পরিচিত। এই রাস্তা দিয়েই প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষকে স্টেশন, হাসপাতাল, অফিস, পুরসভায় যেতে হয়। স্কুল পড়ুয়াদের নিত্য যাতায়াত। বেলা গড়াতেই স্টেশন থেকে কে কত আগে যাত্রী তুলবে অটো ও টোটো চালকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা লেগে যায়। গাড়ি চালকরা স্টেশন থেকে বেরনোর মুখ আটকে রাস্তায় লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ে।

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

কোনও অটো, টোটো চালক রাস্তাতে গাড়ি রেখে যাত্রী ডাকতে যায় স্টেশনে। ভুক্তভোগীরা বলেন, ৪ নম্বর প্ল্যাটফর্ম সংলগ্ন এলাকায়, রেলেগেটের কাছে অটো স্ট্যান্ড রয়েছে, তবুও সেই জায়গা থেকে যাত্রী না তুলে রাস্তা থেকে যাত্রী তোলা হয়। রেলগেট থেকে স্টেশন ৫ মিনিটের রাস্তা, কিন্তু যানজটে পড়ে স্টেশনে যেতে সময় লাগে ৪৫ মিনিট। বিধায়ক, পুরসভার কাউন্সিলররা, পুলিস সব জানে। কিন্তু কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয় না বলে অভিযোগ।

বারুইপুর স্টেশন রোডে অটো ও টোটোর দাপটে যানজট, নাভিশ্বাস সাধারণ মানুষের

এই সমস্যায় তিতিবিরক্ত রাস্তার দু’ধারে থাকা ব্যবসায়ীরাও। তাঁরা বলেন, দোকানের সামনেই অটো, টোটো দাঁড়িয়ে থাকায় দোকানে লোক ঢুকতে পারে না। প্রতিবাদ করলে চালকদের শাসানির মধ্যে পড়তে হয়। বারুইপুরের স্টেশন চত্বরে বড় বড় দুটি হাইস্কুল আছে, সেখানে ছাত্র-ছাত্রীরা সময়মতো পৌঁছাতে পারেনা এই অটো টোটোর জ্বালায়। মানুষের স্বার্থে পৌরসভা ও প্রশাসনকে দেখা উচিত বলে মনে করছে সাধারণ মানুষ।

Most Popular