Sunday, April 14, 2024
spot_img
Homeরাজ্যস্ত্রীর দেহ দু’‌টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দিল স্বামী

স্ত্রীর দেহ দু’‌টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দিল স্বামী

স্টাফ রিপোর্টার: স্ত্রীর দেহ দু’টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে।শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়ার সুদামগঞ্জ এলাকায়।ঘটনাটি ঘটেছে, শিলিগুড়ির ফাঁসিদেওয়ার সুদামগঞ্জ এলাকায়। পুলিশ সূত্রে খবর, খুন হওয়া গৃহবধূর নাম রেণুকা খাতুন (৩০)। স্ত্রী বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়েছে বলে সন্দেহ করত স্বামী। অভিযোগ, আর তা থেকেই সন্দেহের বশেই তাঁকে খুন করে স্বামী এমডি আনসারুল।

স্ত্রীর দেহ দু’‌টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দিল স্বামী

এতেই ক্ষান্ত থাকেনি স্বামী। স্ত্রী রেণুকার দেহ দু’টুকরো করে কেটে তিস্তা ক্যানালে ভাসিয়ে দেয় সে। পুলিশ সূত্রে খবর, শিলিগুড়ি শহরের কলেজ পাড়ায় একটি বিউটি পার্লারে কাজ শিখতেন রেণুকা। ডিসেম্বর মাসের শেষে তাঁর খোঁজ মিলছিল না। এই পরিস্থিতিতে বড়দিনের ঠিক আগে শিলিগুড়ি থানায় নিখোঁজ ডায়েরি দায়ের করেন রেণুকার পরিবার। তদন্তে নামে পুলিশ। স্বামী আনসারুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর সন্দেহ হয় পুলিশের।

স্ত্রীর দেহ দু’‌টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দিল স্বামী

তারপর পুলিশ চেপে ধরলে সে এক এক করে সব কথা স্বীকার করে। সে জানায়, গত ২৪ ডিসেম্বর ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে স্ত্রীকে ফাঁসিদেওয়ায় নিয়ে যায়। এরপর সেখানে স্ত্রীকে প্রথমে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়। এরপর চাকু দিয়ে কুপিয়ে দেহ থেকে মাথা আলাদা করে টুকরো করা হয়। এরপরে দেহ এবং মাথা দুটি আলাদা–আলাদা বস্তায় ভরে ক্যানালের জলে ফেলে দেওয়া হয়।পুলিশ জানিয়েছে, স্ত্রী খুনে মূল অভিযুক্ত স্বামীই। পরিকল্পনা মাফিক স্ত্রীকে খুন করা হয়। স্ত্রীয়ের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে।

স্ত্রীর দেহ দু’‌টুকরো করে খালে ভাসিয়ে দিল স্বামী

সেই সন্দেহ ছিল স্বামীর। তাই স্ত্রীকে ঘুরতে নিয়ে গিয়ে দেহ দু’‌টুকরো করে ক্যানালের জলে ফেলে দেয় স্বামী। এমন শিউরে ওঠা ঘটনা ঘটনা বৃহস্পতিবার জানাজানি হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ক্যানালে বিপর্যয় মোকাবিলা দল নেমে পুলিশের উপস্থিতিতে সন্ধান চলে। অন্যদিকে অভিযুক্ত স্বামীকে শিলিগুড়ি আদালতে তোলা হয়েছে।গোটা ঘটনায় শোরগোল পড়ে গেছে এলাকায়।

Most Popular