Thursday, February 29, 2024
Homeরাজ্যপ্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক...

প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক ট্যাঙ্কে

স্টাফ রিপোর্টার: ৪০ দিন নিখোঁজ থাকার পর সেপটিক ট্যাঙ্ক থেকে উদ্ধার যুবকের দেহ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার হরিণঘাটায়।জানা গিয়েছে, মৃতের নাম আজিজুল মণ্ডল। নদিয়ার হরিণঘাটার বাসিন্দা তিনি। স্ত্রী হামিদা বিবি ও মেয়েদের নিয়ে সেখানেই থাকতেন তিনি। সূত্রে খবর, বাড়ির একটি ঘর ভাড়া দিয়েছিলেন আজিজুল।অভিযোগ, ভাড়াটিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে হামিদা।

প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক ট্যাঙ্কে

তা জানাজানি হতে স্বাভাবিকভাবেই শুরু হয় প্রবল দাম্পত্যকলহ। বারবার স্ত্রীকে এই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার কথা বলেন আজিজুল। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি।অভিযোগ, প্রতিবাদ করায় স্বামীর উপর অত্যাচার করত হামিদা। প্রেমিকের সঙ্গে হাত মিলিয়ে মারধরও করা হয়েছে আজিজুল। এসবের মাঝে ৪০ দিন আগে আচমকা উধাও হয়ে যায় আজিজুল।

প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক ট্যাঙ্কে

সূত্রের খবর, মেজো মেয়ের সামনেই নাকি প্রেমিকের সহযোগিতায় স্বামীকে খুন করে হামিদা। প্রমাণ লোপাটে সরিয়ে ফেলে দেহ। গোটা বিষয়টাই জানত মেজো মেয়ে। মৃতের বড় মেয়ে জানান, বাপের বাড়ি গিয়ে মেজ বোনের কাছে তিনি জানতে পারেন, বাবাকে খুন করেছে। তারপরই তিনি হরিণঘাটা থানায় যান।

প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক ট্যাঙ্কে

মঙ্গলবার হরিণঘাটা থানার পুলিশের সহযোগিতায় মৃতের মেজো মেয়ের দেখানো জায়গায় মাটি খোঁড়া হয়। যদিও সেখানে কিছু পাওয়া যায়নি। তখনই পুলিশ হামিদাকে থানায় নিয়ে যায়। পরে গ্রামের লোকেরা বাড়িতে ঢুকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে।পরে সেফটিক ট্যাঙ্ক থেকে উদ্ধার হয় আজিজুলের দেহ।

প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন বধূর! ৪০ দিন পর দেহ মিলল সেপটিক ট্যাঙ্কে

মঙ্গলবার রাতে হরিণঘাটা থানার পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়ে দেয়। রাতেই হরিণঘাটা থানার পুলিশ গ্রেপ্তার করে হামিদা বিবিকে। একইসঙ্গে ঘটনার তদন্তে নেমে খুনের প্রকৃত কারণ খোঁজার চেষ্টা করছে হরিণঘাটা থানার পুলিশ।

Most Popular

error: Content is protected !!