Friday, July 19, 2024
spot_img
spot_img
Homeজেলানামখানায় জাতীয় সড়কের দু'ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

নামখানায় জাতীয় সড়কের দু’ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

অমিত মণ্ডল ও রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল, নামখানা:
১১৭ নম্বর জাতীয় সড়কের দু’পাশে রাস্তা দখল করে ইট, বালি, পাথর সহ ইমারতি সামগ্রী ফেলে রাখার কারণে প্রায়শই ঘটছে দুর্ঘটনা। এবার তা এড়াতে পথে নেমে ধরপাকড় চালাল নামখানা থানার পুলিশ।রবিবার পুলিশ নামখানার হাতানিয়া দোয়ানিয়া সেতু থেকে লালপোল বাজার পর্যন্ত অভিযান চালল।

নামখানায় জাতীয় সড়কের দু'ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

১১৭ নম্বর জাতীয় সড়কের পাশে বেআইনিভাবে ইমারতি দ্রব্য রাখার জন্য ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পাশাপাশি ৯টি ট্রাকও আটক করেছে নামখানা থানার পুলিশ। ধরপাকড় চালানোর পাশাপাশি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়কের নামখানা ব্লকের দু’পাশে রাখা ইমারতি দ্রব্য যদি না সরিয়ে ফেলা হয়, তাহলে আরও বড় পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে নামখানা থানার পক্ষ থেকে।

নামখানায় জাতীয় সড়কের দু'ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

রবিবার নামখানা বাজার থেকে লালপোল বাজার পর্যন্ত নামখানা থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক বাপি রায় থানার অন্যান্য আধিকারিক এবং সিভিক ভলান্টিয়ারদের নিয়ে অভিযান চালান।স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার দু’দিকে মালপত্র রেখে চলছে ইমারতি ব্যবসা। ফলে মাঝেমধ্যে ঘটছিল দুর্ঘটনা।

নামখানায় জাতীয় সড়কের দু'ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার সতর্ক করে দেওয়া হলেও কোনও লাভ হয়নি। রাস্তা ছোট হয়ে যাওয়ার কারণে দুর্ঘটনা লেগেই থাকত। বিশেষ করে বকখালি ও মৌসুনি পর্যটন কেন্দ্রে যাতায়াতের জন্য কলকাতা থেকে গাড়ি নিয়ে প্রচুর পর্যটক আসেন।

নামখানায় জাতীয় সড়কের দু'ধারে ইমারতি সামগ্রী, চলল ধরপাকড়

রাস্তার দু’পাশে বালি, পাথর, ইট রাখার কারণে রাস্তা সংকীর্ণ হয়ে পড়ছিল। অবশেষে রবিবার পুলিশের হস্তক্ষেপে সরল জাতীয় সড়কের দু’ধারে বেশকিছু অংশে রাখা ইমারতি সামগ্রী।

Html code here! Replace this with any non empty raw html code and that's it.

Most Popular

error: Content is protected !!